কেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ট্রফি নিয়ে সমুদ্রে ঝাঁপ?

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ১০:১৮, বুধবার, ২০ জুলাই, ২০২২, ৫ শ্রাবণ ১৪২৯

স্পোর্টস ডেস্ক

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ট্রফি নিয়ে সমুদ্রে ঝাঁপ দিলেন তিনি। - এ শিরোনাম শুনেই আঁতকে উঠেবেন অনেকে। কে আর কেন ট্রফি নিয়ে অতল সমুদ্রে ঝাঁপ দিলেন? পাগল নাকি! না, বিষয়টি তেমন কিছুই নয়। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক অস্ট্রেলিয়া। প্রতিযোগিতার আকর্ষণ বাড়াতে অভিনব উপায়ে প্রচারণা চালাচ্ছে দেশটি।

 

তার তারই অংশ হিসেবে ট্রফি নিয়ে সমুদ্রে ঝাঁপ দিলেন অসি লেগস্পিনার অ্যাডাম জাম্পা। বলতে গেলে ট্রফি নিয়ে গ্রেট বেরিয়ার রিফের নোনা পানিতে ডুব দিলেন তিনি। এ কাজে তার সঙ্গী হন বিখ্যাত গায়িকা এরিন হল্যান্ড। সমুদ্রের নোনা জল অবশ্য ট্রফির কোনো ক্ষতি করতে পারেনি। কারণ এটি ছিল কাঁচের বাক্সে বন্দি। পানি ঢুকতেই পারেনি বাক্সের ভেতরে।

এক কথায় অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত প্রবাল প্রাচীরের তলদেশ ঘুরে এলো বিশ্বকাপ ট্রফিটি। শুধু কি সমুদ্র তলদেশ! ইতিমধ্যে  ১২টি দেশে ভ্রমণ করে এসেছে এটি।  এবার অস্ট্রেলিয়ার আটটি প্রদেশের ২১টি বাছাই করা স্থানে নিয়ে যাওয়া হবে একে।

এদিকে বিশ্বকাপ ট্রফি নিয়ে সমুদ্রের জলে নামতে পেরে দারুণ উচ্ছ্বসিত অ্যাডাম জাম্পা। দিনটি তার জন্য স্মরণীয় বলে জানালেন এ অসি স্পিনার।

জাম্পা বলেন, ‘এই দিনটা মনে থাকবে। বিশ্বকাপের ট্রফি নিয়ে প্রবাল প্রাচীরের মতো দুর্দান্ত একটা জায়গায় আসার সুযোগ পেয়ে আমি গর্বিত। আমরা ভাগ্যবান যে এমন একটা দেশে বাস করি যেখানে প্রচুর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য রয়েছে। আশা করব, বিশ্বের বহু ক্রিকেটপ্রেমী বিশ্বকাপের সময় অস্ট্রেলিয়ায় আসবেন।’

আসন্ন বিশ্বকাপ নিয়ে জাম্পা আশা ব্যক্ত করেন, ‘মনে হচ্ছে অক্টোবরে দুর্দান্ত ক্রিকেট হবে। বিশ্বের সব সেরা দলই খেলবে। এর আগে ট্রফির এই সফরও ক্রিকেটপ্রেমীদের খুশি করবে।’

প্রসঙ্গত, প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। আগামী ৬ অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় পর্দা উঠবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। ১৩ নভেম্বরে হবে ফাইনাল। ইতোমধ্যে ভেন্যু, দল ও গ্রুপ চূড়ান্ত।

এবার বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে আয়ারল্যান্ড, স্কটল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশ খেলবে সরাসরি গ্রুপ-২ - এ । বাংলাদেশের গ্রুপে রয়েছে - ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, গ্রুপ-এ রানার্সআপ এবং গ্রুপ-বি জয়ী।

অস্ট্রেলিয়ার সাতটি শহরে হতে চলা এই ইভেন্টে এক লাখ বিদেশি দর্শকের উপস্থিতি কামনা করছে অস্ট্রেলিয়া।

Share This Article