পুকুরে মিলল জ্যান্ত ইলিশ

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ০৯:৩১, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০

নদী থেকে কোরাল মাছের পোনা এনে ওই পুকুরে ছাড়া হয়েছিল। এরমধ্যে যে ইলিশ মাছ থাকবে তা কেউ ধারণাই করতে পারেনি। খবর শুনে জ্যান্ত ইলিশ দেখতে আশপাশের লোকজন মসজিদের পুকুরপাড়ে জড়ো হন।

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে একটি মসজিদের পুকুর সেচে এক কেজি ওজনের একটি ইলিশ মাছ পাওয়া গেছে। সাগরের লোনাপানির এ মাছ কীভাবে মিঠাপানির পুকুরে বড় হলো তা নিয়ে চলছে আলোচনা।

শুক্রবার সকালে উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ভূমিহীন বাজারের পাশে এনামুল হক মিয়া মেম্বারের মসজিদের পুকুর থেকে ইলিশ মাছটি পাওয়া যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী মোহাম্মদ আবু নাছের সজিব বলেন, মসজিদের পুকুর সেচে মাছ ধরার জন্য জাল ফেলা হয়। পরে অন্য মাছের সঙ্গে ইলিশ মাছটি দেখে অনেকে হতবাক হয়ে যান। বিষয়টি প্রথমে বিশ্বাস হয়নি। পরে ভালোভাবে পরীক্ষা করে মাছটি ইলিশ বলেই নিশ্চিত হয়েছি।

স্থানীয়রা জানান, নদী থেকে কোরাল মাছের পোনা এনে ওই পুকুরে ছাড়া হয়েছিল। এরমধ্যে যে ইলিশ মাছ থাকবে তা কেউ ধারণাই করতে পারেনি। খবর শুনে জ্যান্ত ইলিশ দেখতে আশপাশের লোকজন মসজিদের পুকুরপাড়ে জড়ো হন। মাছটি সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আশরাফুল ইসলাম সরকার বলেন, গবেষণায় দেখা গেছে স্বাদু পানিতে ইলিশ মাছ কম বাড়লেও একটা সময় পর্যন্ত বেঁচে থাকে। তবে বাণিজ্যিকভাবে এটি লাভজনক নয়। এছাড়া স্বাদু পানিতে ইলিশের স্বাদ ও গন্ধ ঠিক থাকে না। নদীর তীরবর্তী এলাকা হওয়ায় অন্য মাছের সঙ্গে মাছটি পুকুরে আসতে পারে।

বিষয়ঃ বাংলাদেশ

Share This Article