তেলের দরপতন আশা দেখাচ্ছে

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ১০:৫৭, রবিবার, ২৪ জুলাই, ২০২২, ৯ শ্রাবণ ১৪২৯

অপরিশোধিত তেলের দরপতন আশা দেখাচ্ছে সংকটে থাকা বিশ্ববাজারকে। 

বাজার বিশ্লেষকরা মনে করছেন, এভাবে দাম নিয়ন্ত্রণে থাকলে দেশের বাজারেও তেলের দাম বাড়ানোর দরকার হবে না। পেট্রোলিয়াম করপোরেশন বিপিসি জ্বালানির দাম বাড়ানোর সুপারিশ করেছিল। কিন্তু সরকার দাম না বাড়িয়ে সাশ্রয়ের নীতি নিয়েছে।

২৩ জুলাই বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম কমে ব্যারেল ৯৪ ডলারে দাঁড়িয়েছে। গত ৮ মার্চ সর্বোচ্চ ১১৯ ডলার ৬৫ সেন্টে উঠেছিল তেলের দাম।

আন্তর্জাতিক বাজারে জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহে তেলের দাম কিছুটা বাড়ে। এরপর আবার কমতে শুরু করে জুলাইয়ের শুরু থেকেই।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সৌদি আরব সফর তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে আনতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এছাড়া, খাদ্য সরবরাহে জাতিসংঘের উপস্থিতিতে তুরস্কের সঙ্গে রাশিয়া ও ইউক্রেনের চুক্তিও নতুন আশা দেখাচ্ছে।

জ্বালানি বিভাগের একাধিক সূত্র বলছে, যেহেতু তেল ব্যবহারে সরকার সাশ্রয়ী নীতি নিয়েছে, তাই দাম বাড়ানোর যে আলোচনা হচ্ছিল তা থেমে গেছে। জনগণ সরকারের সংকট সামাল দিতে নেওয়া উদ্যোগে দারুণ সাড়া দিয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে, শুধু রাত ৮টায় দোকান বন্ধের সিদ্ধান্ত কার্যকর হওয়ায় দিনে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সাশ্রয় হচ্ছে।

আপাতত ডিজেলচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্রও বন্ধ রেখেছে সরকার। গত বছর ডিজেলচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো ৫ ভাগ প্ল্যান্ট ফ্যাক্টরে চলেছে। চলতি বছর পিডিবি ১৬ ভাগ প্ল্যান্ট ফ্যাক্টরে চালানো হবে বলে জানিয়েছিল। যদিও এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) ১১ ভাগ প্ল্যান্ট ফ্যাক্টরে চলবে বলে উল্লেখ করেছিল। এখন সেগুলো একদমই চালানো হচ্ছে না।

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ সম্প্রতি জানিয়েছেন, ডিজেলচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো ১০ ভাগ জ্বালানি ব্যবহার করে। সেই হিসাবে বার্ষিক ডিজেলের চাহিদা ৫০ লাখ টন হলে বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো ৫ লাখ টন ব্যবহার করে।

জ্বালানি বিভাগ সূত্র বলছে, জ্বালানি আমদানির বড় সমস্যা— তেল আমাদানি করতে বৈদেশিক মুদ্রার প্রয়োজন হয়। সম্প্রতি তেল আমদানির এলসির জন্য ডলার দিতে চাচ্ছিল না ব্যাংকগুলো। পরে সরকারের উচ্চপর্যায়ের হস্তক্ষেপে বিষয়টির সমাধান হয়।

বিপিসির কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, তারা তেলের দাম বাড়ানোর জন্য সরকারের কাছে সুপারিশ করেছিল। কিন্তু এরপর আর এ বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

বিপিসি সরকারের কাছে পাঠানো প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, তাদের প্রতিদিন ১০০ কোটি টাকার লোকসান হচ্ছে। তবে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমায় লোকসানের হিসাবেও আসবে পরিবর্তন।

Share This Article

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আ.লীগের দায়িত্বে লোটাস-মুজিব

আগামী বছর রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে: চীনা রাষ্ট্রদূত

পুলিশের ওপর আক্রমণে ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হয়েছিল : তথ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ ও ভারতের বহুমুখী সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হচ্ছে

‌‘জোশে হুঁশ হারিয়েছিলেন, এখন হাত-পা ধরা শুরু হয়ে গেছে’

বিজয়ের মাসে দেশকে অস্থিতিশীল করার পরিকল্পনা করছে বিএনপি : আমু

যে কোন উন্মুক্ত স্থানে সমাবেশ করতে পারবে বিএনপি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর সাহসী নেতৃত্বে ‘সোনার বাংলার’ দ্বারপ্রান্তে দেশ: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

১০ ডিসেম্বরের আগেই কেন নাশকতায় বিএনপি

তারেককে দেশে ফিরিয়ে সাজা বাস্তবায়ন করবো: শেখ হাসিনা


বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরীতে বিনিয়োগে বাজিমাত !

ব্যাংকে যথেষ্ট টাকা আছে, নিরাপদে আছে, কোন ঘাটতি নেই : বিএবি

দেশের ব্যাংকিং খাত নিয়ে উদ্দেশ্যমূলক অপপ্রচার চালাচ্ছে একটি চক্র, তারল্যের সঙ্কট নাই

নভেম্বরের ২৫ দিনে রেমিট্যান্স এসেছে ১৩৪ কোটি ডলারের বেশি

বিলাসবহুল পণ্য আমদানি ও ব্যবহার কমানোর নির্দেশ

সরকারি-বেসরকারি কোন ব্যাংকের এমডি’র বেতন কত?

ট্যানারি শিল্পে ৫০ লাখ শ্রমিকের কর্মসংস্থানের সম্ভাবনা

২০৪০ সালে বাংলাদেশের অর্থনীতি হবে ট্রিলিয়ন ডলারের

অতি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের ঋণের ক্ষেত্রে গ্যারান্টার থাকবে বাংলাদেশ ব্যাংক!

স্বল্প সুদে কৃষিঋণ বিতরণে বাংলাদেশ ব্যাংক এর নির্দেশ

হুন্ডি বন্ধে যে পদক্ষেপ নিলো সরকার

ব্যাংকগুলোতে পর্যাপ্ত অর্থ আছে: এবিবি