ময়মনসিংহ শিক্ষা নগরী থেকে প্রযুক্তির নগরী হবে: পলক

  বিডি পিপলস ভয়েস ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৫:৩৬, বুধবার, ২২ জুন, ২০২২, ৮ আষাঢ় ১৪২৯

তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ময়মনসিংহকে আজ শিক্ষা নগরী থেকে প্রযুক্তির নগরী তৈরি করার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা ১৫৩ কোটি টাকা ব্যয়ে হাইটেক পার্ক উপহার দিয়েছেন।

 আজ থেকে ১৩ বছর আগে প্রযুক্তির কোনো কনসেপ্ট আমাদের তরুণদের সামনে ছিল না। ডিজিটাল কর্মসংস্থানের যে সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে দেশে, তা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ব্রেইন চাইল্ড। বুধবার দুপুরে সাত একর জমিতে ময়মনসিংহ সদরের কিসমত রহমতপুরে আইটি/হাই-টেক পার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী আরও বলেন, হাই-টেক পার্ক এই এলাকার তরুণ প্রজন্মের কর্মসংস্থানের ঠিকানা হবে। এটি চালু হলে এলাকার তরুণদের চাকরির জন্য ঢাকা কিংবা বিদেশমুখী হতে হবে না।

তিনি আরও বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব মোকাবিলা অগ্রসরমান প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণার লক্ষ্যে দেশের ৩৩ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষায়েত ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। এর ফলে বাংলাদেশ শ্রমনির্ভর অর্থনীতি থেকে জ্ঞাননির্ভর, উন্নত অর্থনীতির স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।

‘ভারত সরকারের অর্থায়নে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের অধীন জেলা পর্যায়ে আইটি/হাইটেক পার্ক স্থাপন প্রল্পের আওতায় ময়মনসিংহে এ হাই-টেক পার্কটি ৭ একর জমির ওপর ১৫৩ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে। এতে প্রতি তলায় ১৫ হাজার বর্গফুটবিশিষ্ট সাততলা ভবন এবং সিনেপ্লেক্স নির্মিত হবে।’

‘পার্কটি চালু হলে প্রতিবছর ১ হাজার তরুণ প্রশিক্ষণ গ্রহণ ও ৩ হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। আগামী দুই বছরের মধ্যে পার্কের নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।’ বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরিফ আহমেদ, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য বেগম মনিরা সুলতানা এমপি, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম, ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. বিকর্ণ কুমার ঘোষ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু প্রমুখ।

Share This Article