উপজেলা নির্বাচন বর্জন : লাভের চাইতে ক্ষতি বেশি বিএনপির!

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ রাত ০৮:৩৫, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩০

বিভিন্ন সংকটে ভুগতে থাকা বিএনপির উচিত স্থানীয় নির্বাচনে অংশগ্রহন করে তৃণমূলকে চাঙা রাখা। সেজন্য হলেও উপজেলা নির্বাচনে স্থানীয় নেতাদের অংশগ্রহণে নমনীয়তা দেখাতে পারে দলটির হাইকমান্ড। নাহলে মনোনয়ন জমার পরেও নির্বাচনে অংশগ্রহণ না নেয়ার সিদ্ধান্তে হিতে-বিপরীত হয়ে দাঁড়াবে। 

উপজেলা নির্বাচনে দলীয় প্রতীক না থাকায় নেতাকর্মীদের সবুজ সংকেত দিয়েছিলো বিএনপি।  এতে মনোনয়নও কেনেন স্থানীয় পর্যায়ের অনেক নেতা। তবে হঠাৎ নাটকীয়ভাবে ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত নেয় দলটি। নীতিনির্ধারকদের এমন সিদ্ধান্তে হতবাক হয়ে পড়েন অনেকে। কেউ কেউ দলের নির্দেশ না মেনে থাকতে চান ভোটের মাঠে।  তবে উপজেলা নির্বাচনে অংশ না নিলে বিএনপির লাভের চেয়ে ক্ষতিই বেশি হবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

সূত্র মতে, নির্বাচনের ব্যাপারে নমণীয়তার কারণে বিএনপির পদধারী ৪৭ জনসহ মোট প্রায় ১৩০ জন নেতা চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন। অনলাইনে মনোনয়ন পত্রও জমা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু দলের নির্দেশ পাওয়ার পর তারা এখন কি করবেন, এ নিয়ে নিজেরাই বিব্রতকর অবস্থায় রয়েছেন।

এদিকে প্রথম ধাপের মনোনয়ন পত্র জমা দেয়ার শেষ দিন রাতে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছ থেকে ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত পেয়ে হতবাক হন মহাসচিবসহ অনেকে।  হতাশাও ব্যক্ত করেছেন সিনিয়র বেশ কয়েকজন নেতা। 
স্থানীয় পর্যায়ের একাধিক নেতার সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, উপজেলা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করা সবাই কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলেই মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। সেই সাথে তাদের আশ্বস্ত করা হয়েছিল যে, নির্বাচনের ব্যাপারে বিএনপি নমনীয় থাকবে। কিন্তু দলের এমন সিদ্ধান্ত  চরম হতাশ তারা।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বিভিন্ন সংকটে ভুগতে থাকা বিএনপির উচিত স্থানীয় নির্বাচনে অংশগ্রহন করে তৃণমূলকে চাঙা রাখা। সেজন্য হলেও উপজেলা নির্বাচনে স্থানীয় নেতাদের অংশগ্রহণে নমনীয়তা দেখাতে পারে দলটির হাইকমান্ড। নাহলে মনোনয়ন জমার পরেও নির্বাচনে অংশগ্রহণ না নেয়ার সিদ্ধান্তে হিতে-বিপরীত হয়ে দাঁড়াবে। এছাড়া বারবার ভোট বর্জনে মাঠের নেতা-কর্মীদেরও খুঁজে পাওয়া দুষ্কর হয়ে পড়বে বলেও মনে করছেন তারা।

বিষয়ঃ বিএনপি

Share This Article


ব্যাংক খাত নিয়ে পরিকল্পিত অপপ্রচার!

বিএনপির মহাসচিব নিয়োগে তারেকের সাথে তৃণমূলের মতবিরোধ!

যত মার্কিন কর্মকর্তাই আসুন বিএনপির আশাবাদী হওয়ার ন্যূনতম কারণ নেই!

দল পুনর্গঠনে সরকার বিরোধিতার নতুন কৌশলে জাতীয় পার্টি!

উপজেলা নির্বাচন : বিএনপির ৭ জনের জয়ে বেকায়দায় স্থানীয় দায়িত্বশীলরা!

বিএনপির আন্দোলন: ভারত বিরোধিতাই মুখ্য হয়ে উঠছে!

বিএনপি নেতারা ক্লান্ত: জানালেন গয়েশ্বর

বিবিসি প্রতিবেদন: তৃণমূলের উপর বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্বের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে প্রশ্ন উঠছে!

কেন গরমে নয় আন্দোলন: জানালেন মান্না

উপজেলা নির্বাচন: 'জয়ী-বহিষ্কৃতদের' গোপনে সমর্থন জানাচ্ছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা!

সাত জানুয়ারির নির্বাচনে যেতে মোটা অংকের টাকা দাবি করেছিলেন মান্না!

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে বড় পরিবর্তন আসছে: বিবিসির প্রতিবেদন