ঈদযাত্রা নিরাপদ ও স্বস্তিদায়ক করতে পুলিশকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার নির্দেশ আইজিপির

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ০৯:৪২, বুধবার, ৩ এপ্রিল, ২০২৪, ২০ চৈত্র ১৪৩১
  • বাঙালির প্রাণের উৎসব বাংলা নববর্ষ।
  • আনন্দমুখর পরিবেশে পহেলা বৈশাখ উদযাপনের লক্ষ্যে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।
  • বাংলা নববর্ষকে কেন্দ্র করে কোনো মহল যাতে কোনো ধরনের গুজব ছড়িয়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে না পারে সেজন্য মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে।

ঈদে ঘরমুখো মানুষের যাতায়াত নিরাপদ ও স্বস্তিদায়ক করার লক্ষ্যে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার জন্য মাঠ পর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন।  

তিনি বলেন, মহাসড়কে নসিমন, করিমন, ভটভটি ইত্যাদি যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। যাত্রীদের নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ফিটনেসবিহীন কোনো গাড়ি চলাচল করতে পারবে না। তিনি ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সার্বক্ষণিক মাঠে থেকে ব্যক্তিগত তদারকির মাধ্যমে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল নির্বিঘ্ন করতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণেরও নির্দেশনা দেন। সড়ক পথ, রেলপথ ও নৌপথে যাত্রীদের নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করতে হবে। নৌ দুর্ঘটনা ও নৌ ডাকাতি রোধে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।  

মঙ্গলবার সকালে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের হল অব প্রাইডে আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর এবং বাংলা নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে সার্বিক আইনশৃঙ্খলা, নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সভায় এ নির্দেশনা দেন আইজিপি। সভায় ঈদুল ফিতর ও পয়েলা বৈশাখ সামনে রেখে সামগ্রিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, শিল্পকারখানা, গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রি, ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
দেশের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে নিরাপত্তা দেওয়ার ক্ষেত্রে ট্যুরিস্ট পুলিশের পাশাপাশি জেলা পুলিশকেও প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ দেন আইজিপি।

পুলিশপ্রধান বলেন, গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রির শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধ নিয়ে যাতে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর অবস্থার সৃষ্টি না হয় সেজন্য ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশকে তৎপর থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ঈদে শহর ছেড়ে যাওয়া মানুষের বাসা-বাড়ি, মার্কেট, আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও অন্যান্য স্থাপনার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য পুলিশের নজরদারি বাড়াতে হবে।  

দেশের গুরুত্বপূর্ণ ঈদ জামাতস্থলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্যও পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন আইজিপি।

তিনি বলেন, বাঙালির প্রাণের উৎসব বাংলা নববর্ষ। আনন্দমুখর পরিবেশে পহেলা বৈশাখ উদযাপনের লক্ষ্যে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে। বাংলা নববর্ষকে কেন্দ্র করে কোনো মহল যাতে কোনো ধরনের গুজব ছড়িয়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে না পারে সেজন্য মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে।

পুলিশ সদস্যদের নির্দেশ দিয়ে আইজিপি বলেন, সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা অনুযায়ী সেবা দেওয়ার লক্ষ্যে পেশাদারিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দেশের জনগণ প্রতিবছরের মতো এবারও উৎসবমুখর পরিবেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর ও বাংলা নববর্ষ উদযাপন করতে পারবেন।

সভায় অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) মো. কামরুল আহসান, স্পেশাল ব্রাঞ্চের অতিরিক্ত আইজিপি মো. মনিরুল ইসলামসহ অন্যান্য অতিরিক্ত আইজিপি, বিশেষায়িত ইউনিটগুলোর প্রধান, ঢাকা বিভাগের পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের প্রধান, মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ও রেঞ্জ ডিআইজিরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সব জেলার পুলিশ সুপার অনলাইন প্ল্যাটফর্মে সভায় যুক্ত ছিলেন।

Share This Article