নির্বাচনে বাধা আসলেও মার্কিন ভিসা নিষেধাজ্ঞা প্রয়োগ নিয়ে প্রশ্ন

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ১২:৪৩, বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২৩, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪৩০

যুক্তরাষ্ট্র যে ভিসা নীতি ঘোষণা করেছে সেখানে সরাসরি বিএনপি অভিযুক্ত হয়। কারণ তারা তফসিলকে প্রত্যাখ্যান করে ভোটারদের নিরুৎসাহিত করাসহ সরাসরি নির্বাচন প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছে। তবে এখন কেন নিশ্চুপ যুক্তরাষ্ট্র? কেন এই নিষেধাজ্ঞার প্রয়োগ শুরু হচ্ছে না?

 

 

মে মাসে বাংলাদেশের ব্যাপারে ভিসা নীতি ঘোষণা করেছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বলা হয়েছিল যে,  অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের বাধা সৃষ্টিকারীদের ভিসা নীতির আওতায় আনা হবে। কিন্তু সারাদেশে নির্বাচনী আমেজ তৈরি হওয়ার পরেও একের পর এক বাধা সৃষ্টি করে চলেছে মাঠের বিরোধী দল বিএনপি।

ফলে প্রশ্ন উঠছে, ভিসা নীতির ব্যাপারে এখন কোন রকম উচ্চবাক্য নেই কেন যুক্তরাষ্ট্রের? এখনও নিষেধাজ্ঞার প্রয়োগ শুরু হচ্ছে না কেন?

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রকে ইঙ্গিত করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে যারা বাধা দিচ্ছে, প্রতিনিয়ত অগ্নিসংযোগ করছে, যারা মানবাধিকার, সুশাসন, সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বলে, তারা কেন এখন নীরব?  তারা তো নির্বাচন বাধাগ্রস্ত করার মতো কাজ যারা করবে, তাদের বিষয়ে  স্পষ্ট অবস্থান নিয়েছিল। তবে এখন কেন কিছু বলছে না? তাহলে এই ভিসা নীতি কার বিরুদ্ধে, প্রশ্ন রাখেন তিনি।

সমালোচকরা বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যে ভিসা নীতি ঘোষণা করেছে সেখানে সরাসরি বিএনপি অভিযুক্ত হয়। কারণ তারা তফসিলকে প্রত্যাখ্যান করে ভোটারদের নিরুৎসাহিত করাসহ সরাসরি নির্বাচন প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছে।দলটি হরতাল-অবরোধ ডেকে গাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগে লিপ্ত। এই বিষয়গুলো জনগণকে ভীতি প্রদর্শন ও নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করছে। যারা এসব তৎপরতার সঙ্গে জড়িত তাদেরকে এখনই ভিসা নীতির আওতায় আনা উচিত,যেহেতু ভিসানীতি ইতিমধ্যে কার্যকর বলেও জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

বিশ্লেষকরা বলেন, বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র। এই নির্বাচনে যেন জনগণের প্রতিনিধিত্বশীল থাকে সেটি মার্কিনীদের আকাঙ্ক্ষা। এরই মধ্যে দেশটি কোনো বিশেষ দল বা ব্যক্তির পক্ষে বা বিপক্ষে নয় বলেও অবস্থান পরিষ্কার করেছে। হতে পারে নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করবে যুক্তরাষ্ট্র এবং এই সময়ের মধ্যে যারা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার সঙ্গে যুক্ত থাকবে তাদেরকে ধরে ধরে তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। আর নির্বাচনের পরপরই এই তালিকা প্রকাশ করা হবে বলেও মনে করেন বিশ্লেষকরা।

Share This Article

রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণসহ প্রধানমন্ত্রীর ১৫ নির্দেশনা

জলবায়ু পরিবর্তনে দেশে তাপমাত্রা বেড়ে যাচ্ছে : গবেষণা

রাখাইনে ৮০ জান্তা সৈন্যকে হত্যার দাবি আরাকান আর্মির

সিলেট বিমানবন্দরের উন্নয়ন কাজের গতি বাড়ানোর নির্দেশ মন্ত্রীর

উন্নয়ন দেখতে কক্সবাজার যাচ্ছেন সব দেশের রাষ্ট্রদূত

এবার ন্যাটোর সঙ্গে সরাসরি যুদ্ধের হুমকি রাশিয়ার

বাংলাদেশের তিন বাহিনীর প্রধানদের সঙ্গে ভারতের বিমানবাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

বিদ্যুৎ উৎপাদনে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির ব্যাখ্যা দিল মন্ত্রণালয়

সংরক্ষিত ৫০ নারী এমপির গেজেট প্রকাশ

বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে যে যুক্তি দিলেন প্রতিমন্ত্রী


ফের রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছেন ইউনূস!

'ওয়ান ইলেভেন' নিয়ে নিজের সম্পৃক্ততা স্বীকার করলেন ইউনুস!

হুমকি-ধামকি দিয়ে ভারতীয় পণ্য বয়কটের আহ্বান!

প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনার পর মার্কিন ভেটোর তীব্র প্রতিক্রিয়া আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও!

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে মজুতদারদের ‘গণধোলাই’ বিতর্ক!

প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন: ফিলিস্তিনের জায়গা দখলে দোষ নেই, কিন্তু ইউক্রেনেরটা আগ্রাসন?

তেল, গ্যাস উত্তোলনের জন্য আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান

শীর্ষ নেতৃত্ব'র ব্যর্থতাকে দায়ী করলেন রুমিন ফারহানাও!

মেগা প্রকল্প: কোনটির কাজ কবে শেষ হবে?

আফরিন আকতারের ঢাকা সফর:বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের ‘নতুন অধ্যায়’ শুরু

মেট্রো রেল'র যান্ত্রিক ত্রুটি নিয়ে অপপ্রচার: শঙ্কা নেই বলছেন বিশ্লেষকরা!

আন্তর্জাতিক আদালতেও ফিলিস্তিনের পক্ষে বাংলাদেশ