পুনরায় ক্ষমতায় আসছে আওয়ামী লীগ: কৌশল পরিবর্তন জামায়াতের!

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৫:৩৬, সোমবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২৩, ৩ আশ্বিন ১৪৩০

ফের ক্ষমতায় বসছে আওয়ামী লীগ। এমন নিশ্চিত তথ্য থাকার পরও বিএনপির সঙ্গে আন্দোলনে যাওয়া ঠিক হবে না জামায়াতের। এখন প্রয়োজন রাজনৈতিক কৌশলে পরিবর্তন আনা।

আর কয়েক মাস পরেই হবে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন। দেশি-বিদেশি চাপ সামলে ফের ক্ষমতায় যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে আওয়ামী লীগ। কিন্তু ভোটের মাঠে ক্ষমতাসীনদের ছাড় দিতে নারাজ বিএনপি। তবে বিভিন্ন জরিপে পুনরায় আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার ইঙ্গিত পেয়ে জামায়াত তাদের কৌশল পরিবর্তন করছে বলে জানিয়েছে একটি সূত্র।

জানা যায়, আগামী জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে গত বছর থেকে এখন পর্যন্ত একাধিক জরিপ চালিয়েছে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থা। প্রথম সারির গণমাধ্যমেও ভোটাভুটি চালু করা হয়। সর্বশেষ গত ১১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের শাসনব্যবস্থা নিয়ে একটি জরিপ প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ‘ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশন’। যেখানে আওয়ামী লীগকে আবারও ক্ষমতায় চেয়ে নিজেদের মতামত জানিয়েছেন বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ। এছাড়া ‘এক সরকার’ বারবার থাকলে নানান সুবিধার দিকও তুলে ধরেছেন ৬১ শতাংশ লোক। এরপরই এ নিয়ে নতুন করে হিসাব-নিকাশ শুরু হয় রাজনৈতিক পরিমণ্ডলে।

একাধিক সূত্র বলছে, দ্বাদশ নির্বাচন ঘিরে শুরু থেকেই ভিন্ন গতিতে এগোচ্ছে জামায়াত। বিএনপির সঙ্গে আন্দোলনে না গিয়ে গোপনে প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ শুরু করে দলটি। স্বতন্ত্র হয়ে ভোটে অংশ নেয়ার প্রস্তুতি হিসেবে এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি আসনে প্রার্থী ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় নেতারা। একই সঙ্গে নির্বাচনের আগে সরকারের সঙ্গে আঁতাত করারও জল্পনা-কল্পনা চলছে জামায়াতের নীতিনির্ধারণী ফোরামে। সরকারের তরফ থেকে সুবিধা পেলে নিজেদের ‘রূপ’ পাল্টাবে বলেও গুঞ্জন উঠেছে।

সম্প্রতি এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন শিবিরের সাবেক এক কেন্দ্রীয় নেতা। নিজের ফেসবুক ওয়ালে এই নেতা লিখেছেন, ২৪ সালের জানুয়ারিতে ফের ক্ষমতায় বসছে আওয়ামী লীগ। এমন নিশ্চিত তথ্য থাকার পরও বিএনপির সঙ্গে আন্দোলনে যাওয়া ঠিক হবে না জামায়াতের। এখন প্রয়োজন রাজনৈতিক কৌশলে পরিবর্তন আনা। তাহলেই আমাদের স্বার্থ হাসিল হবে। নয়তো ২০১৩-১৪ সালের মতো আবারও খেসারত দিতে হবে শীর্ষ নেতাদের।

সমালোচকরা বলছেন, চলমান উন্নয়নকে এগিয়ে নিতে নীরবে শেখ হাসিনাকে সমর্থন করে যাচ্ছেন দেশের একটি বিশাল জনগোষ্ঠী। অন্যদিকে দেশি-বিদেশি নানান ষড়যন্ত্র চালিয়েও তেমন একটা লাভবান হয়নি বিএনপি। ফলে আগামী নির্বাচনে যেতে আগ্রহী বিরোধী ঘরানার বেশ কিছু দল। জামায়াতও একই সুরে কথা বলছে। কেননা ভোটে অংশ না নিলে দিনশেষে দলেরই ক্ষতি হয়। এজন্য নতুন কৌশল হিসেবে নেতা-কর্মীদের দিয়ে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন কেন্দ্রীয় নেতারা।

Share This Article


হঠাৎ অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান হাইকমিশনারের সঙ্গে সাক্ষাৎ কেন ফখরুলের?

বাজেট সমালোচনা যুগেযুগে: কেউ কারো বাজেটের প্রশংসা করেনি!

ছয়দফা কেন বাঙালির মুক্তির সনদ

ভারতে বিজেপি দুর্বল হওয়ায় বিএনপি খুশি, আওয়ামী লীগও খুশী!

জনস্বার্থ সংশ্লিষ্ট ইস্যু পেয়েও সুযোগ হারাচ্ছে বিএনপি!

বন্ধ করে দেয়া ১৪৮ ফেসবুক আইডি বা পেজ এর মালিক কে?

কার অভিশাপের কথা বললেন ড. ইউনুস?

ইউরোপ-আমেরিকার চেয়ে বাংলাদেশে নিত্যপণ্যের দাম কোনোভাবেই বেশি নয়!

মাহফুজ আনামরাও কি বেনজিরের সহযোগী নয়?

বিএনপি এবার কীভাবে এগোবে, প্রশ্ন তৃণমূলের, নীরব হাইকমান্ড!

বিএনপি শাসনামল:যেভাবে দুর্নীতিতে বিপর্যস্ত হয়েছিল বাংলাদেশ

আন্দোলনের মাঠ ছেড়ে বিদেশে দুই ডজনের বেশি বিএনপি নেতা