খাদ্যের জন্য বিদেশের ওপর নির্ভরশীল থাকা যাবে না: কৃষিমন্ত্রী

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ রাত ০৮:৫৩, বৃহস্পতিবার, ২৮ জুলাই, ২০২২, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৯

খাদ্যের জন্য কোনোক্রমেই বিদেশের ওপর নির্ভরশীল থাকলে হবে না বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।

তিনি বলেছেন, ভবিষ্যতে খাদ্য নিরাপত্তা টেকসই করা বিরাট চ্যালেঞ্জ। এ মুহূর্তে দেশে সাড়ে ১৬ কোটি মানুষ। অন্যদিকে, কমছে কৃষিজমি। এ অবস্থায় এ কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হলে কৃষিকে বিজ্ঞানভিত্তিক করতে হবে, যান্ত্রিক করতে হবে, আধুনিক করতে হবে। উদ্ভাবিত জাত ও প্রযুক্তিকে দ্রুত মাঠে নিয়ে যেতে হবে। তাহলেই খাদ্যনিরাপত্তা টেকসই করা সম্ভব হবে।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) সকালে রাজশাহী শহরের শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে রাজশাহী, রংপুর বিভাগসহ বরেন্দ্র অঞ্চলে ‘তেল ফসল ও ধানের উৎপাদন বৃদ্ধি’ শীর্ষক কর্মশালায় এ মন্তব্য করেন মন্ত্রী। এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি) ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর (ডিএই)।

কৃষি কর্মকর্তাদের দ্রুত খাদ্য উৎপাদন বাড়ানোর আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, খাদ্যের জন্য বিদেশের ওপর কোনোক্রমেই নির্ভরশীল থাকলে হবে না। বিশ্ব খুবই নির্দয় ও নিষ্ঠুর। নিজ দেশের স্বার্থ ও জাতীয় স্বার্থে তাদের মধ্যে কোনো মানবতাবোধ, গণতন্ত্র ও নীতি-আদর্শ কাজ করে না। রাশিয়ার- ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যে শস্য রপ্তানির একটি চুক্তি হয়েছে। কিন্তু নানা অজুহাতে সেটি এখনো কার্যকর হয়নি। এরকম অস্বাভাবিক বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে নিজেদের খাদ্য নিজেরা উৎপাদন করতে না পারলে, টাকা থাকলেও খাদ্য পাওয়া যাবে না।

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, দ্রুত চালের উৎপাদন বাড়ানোর জন্য ব্রি ২৮সহ পুরনো জাতের ধানের পরিবর্তে নতুন উদ্ভাবিত বেশি উৎপাদনশীল জাত ব্রিধান ৮৯, ৯২ ও ১০০সহ নতুন জাতগুলো কৃষকের কাছে দ্রুত পৌঁছে দিন ও জনপ্রিয় করুন। এ জাতগুলোর ফলন বিঘাতে ৩০ মণের বেশি হয়। এগুলো চাষ করলে চালের উৎপাদন ৩০ শতাংশ বাড়ানো সম্ভব হবে।

ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, দেশে ডলারের, তেলের ও সারের সংকট নেই। কিন্তু তথাকথিত কিছু বুদ্ধিজীবীসহ যারা চায় সরকারের তাড়াতাড়ি পতন হোক— তারাই এ সংকটের কথা বলে বেড়াচ্ছে। তারাই চায় দেশে খাদ্য সংকট ও অর্থনৈতিক বিপর্যয় হোক। তারা স্বপ্ন দেখছে, এসব সংকট হলে আন্দোলন করে ক্ষমতায় আসবে বা সরকারের পতন হলে অগণতান্ত্রিক অনির্বাচিত সরকারের উপদেষ্টা ও মন্ত্রী হবে। আমি মনে করি, তারা গণতন্ত্রের শত্রু, দেশের শত্রু।

Share This Article

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা মোহাম্মদ আলী জান্নাহর সঙ্গে সালমান এফ রহমান

‘পর্যটন উন্নয়নে মালদ্বীপের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চায় বাংলাদেশ’

কারামুক্ত হয়ে বিএনপি নেতা এ্যানী'র ক্ষোভ : দলীয় ঐক্য ও ত্যাগ স্বীকার যথেষ্ট ছিলো না!

বিএনপির কর্মসূচিতে বাধা নয়, সহিংস হলে ব্যবস্থা: কাদের

গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে : ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট

'ওয়ান ইলেভেন' নিয়ে নিজের সম্পৃক্ততা স্বীকার করলেন ইউনুস!

শবে বরাতের নামাজের নিয়ম ও নিয়ত

মজুতদার-সিন্ডিকেটকে বিএনপি পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

বঙ্গবন্ধুর 'রাষ্ট্রভাষা দিবস' ঘোষণায় যেভাবে '২১' হয়ে উঠলো ইতিহাস

মিয়ানমার ও রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারত-বাংলাদেশকে একসাথে কাজ করার পরামর্শ ডোনাল্ড লু'র

ফের বিয়ে করলেন ক্রিকেটার আল আমিন


পুলিশ সপ্তাহ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

কোন্দল মেটাতে ঢাকায় ডাকা হচ্ছে আওয়ামী লীগ নেতাদের

বাতিল হলো ‘বঙ্গবন্ধু বিচ’ নামকরণের নির্দেশনা

ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেফতার

বাইডেনের চিঠির জবাব দিলেন শেখ হাসিনা

নারী উদ্যোক্তা তৈরিতে বিশ্বব্যাংকের বিশেষ তহবিল চান প্রধানমন্ত্রী

২৪ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৮ হাজার কোটি টাকা

ঢাকা ছাড়লেন পিটার হাস

আইজিপি ব্যাজ পাচ্ছেন ৪৮৮ পুলিশ সদস্য

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হলেন ৫০ নারী, গেজেট মঙ্গলবার

‘ফিলিস্তিনের বিপক্ষে অপতথ্য ছড়ানো প্রতিরোধে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে হবে’

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ : বিশ্বব্যাংকের এমডি