দুর্নীতির অভিযোগে পশ্চিমবঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী গ্রেপ্তার

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ১১:৪৯, শনিবার, ২৩ জুলাই, ২০২২, ৮ শ্রাবণ ১৪২৯

টানা ২৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে স্কুল শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে রাজ্য সরকারের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী এবং ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের জ্যেষ্ঠ নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

শনিবার বেলা ১০ টার দিকে তাকে কলকাতার নাকতলা এলাকার নিজ বাসভবন থেকে গ্রেপ্তার করে ভারতের অর্থনৈতিক গোয়েন্দা ও আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টোরেট (ইডি)।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টা নাগাদ পার্থের নাকতলার বাড়িতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য যায় ইডির একটি দল। সারা দিন ও রাতভর মন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ইডির দাবি, দক্ষিণ কলকাতায় পার্থের ‘ঘনিষ্ঠ’ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের বাড়ি থেকে প্রায় ২১ কোটি টাকা নগদ পাওয়া গিয়েছে। দুবস্তায় ভরা ছিল ২০০০ এবং ৫০০ টাকার নোটের বান্ডিল। ওই বাড়ি থেকে ২০টি মোবাইল ফোনও পাওয়া গিয়েছে বলে ইডির দাবি। যে নগদ উদ্ধার হয়েছে, তা ব্যাঙ্ককর্মীদের দিয়ে যন্ত্রের সাহায্যে শনিবার সকাল পর্যন্ত গোনার কাজ চলেছে।

ইডি সূত্রের খবর, ওই টাকা স্কুলে বেআইনি নিয়োগে নেয়া ঘুষের অংশ বলেই প্রাথমিক ভাবে মনে করছে তারা।

ইডির দাবি, প্রাক্তন বিচারপতি রঞ্জিত কুমার বাগের নেতৃত্বাধীন কমিটির রিপোর্টে ও সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে শিক্ষাসচিব মণীশ জৈন জানিয়েছেন, প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশেই সমস্ত নিয়োগ করা হয়েছিল। উনিই নিয়োগের ক্ষেত্রে মূল নিয়ন্ত্রক ছিলেন।

প্রাথমিক ভাবে নথি সংগ্রহ ও জিজ্ঞাসাবাদ করে তা যাচাই করা হয় বলে ইডি সূত্রের খবর।

বিষয়ঃ ভারত

Share This Article

শরিকদের সাথে প্রতারণা, ভরাডুবি হলে সব দায় বিএনপির !

গণতন্ত্র মঞ্চ: ভাগবাটোয়ারা নিয়ে দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে

নির্বাচন কমিশনে চিরুনি অভিযান:সর্ষেই ভুত!

বিএনপির যুগপৎ আন্দোলন:সময় না পেরুতেই বেকায়দায় আন্দোলনের সঙ্গীরা!

যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশ বিরোধী অপপ্রচার প্রচেষ্টায় গুরুত্ত্ব দিচ্ছে না!

যেভাবে বিশ্ব রাজনীতিতে প্রভাব ফেলছে বাংলাদেশ!

দুই মার্কিন কর্মকর্তার ঢাকা সফর: নতুন উচ্চতায় বাংলাদেশ-মার্কিন সম্পর্ক

বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে বিদ্যুতের দাম কেমন?

কয়লার দামে আদানির কারসাজি: বিদ্যুৎ ক্রয়চুক্তির সংশোধন চায় বাংলাদেশ

উপনির্বাচনের প্রার্থী হিরো আলম নাকি বিএনপি?