যে কারণে বঙ্গবন্ধু পেলেন ‘বিশেষ সাহিত্য পুরস্কার’

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ রাত ০৮:১৬, সোমবার, ২৭ মার্চ, ২০২৩, ১৩ চৈত্র ১৪২৯

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘সার্ক সাহিত্য পুরস্কার ২০২৩’ এ ভূষিত করা হয়েছে। পুরস্কারটি বঙ্গবন্ধুকে প্রদান করেছে ফেডারেশন অব সার্ক রাইটার্স অ্যান্ড লিটারেচার (এফওএসডব্লিউএএল)। বাংলাদেশের ৫৩তম স্বাধীনতা দিবসের ঐতিহাসিক ক্ষণে এ মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার প্রদান করা হয়।

প্রখ্যাত পাঞ্জাবি ঔপন্যাসিক এবং এফওএসডব্লিউএএল-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অজিত কৌর আনুষ্ঠানিকভাবে সংগঠনের আঞ্চলিক সম্মেলনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশি লেখক ও গবেষক রামেন্দু মজুমদার এবং মফিদুল হকের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন।

‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’, ‘কারাগারের রোজনামচা’ এবং ‘আমার দেখা নয়াচীন’ এই বইগুলোর জন‌্য বঙ্গবন্ধুকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। তাঁর এই বইগুলোকে মানুষের প্রতি তার পরম ভালোবাসা ও মমত্ববোধের বহিঃপ্রকাশ বলে অভিহিত করে এফওএসডব্লিউএএল।

উল্লেখ্য, সার্ক সাহিত্য পুরস্কার  ২০০১ সাল থেকে ফাউন্ডেশন অব সার্ক রাইটার্স অ্যান্ড লিটারেচার প্রদত্ত বার্ষিক পুরস্কার। পুরস্কারটি খ্যাতনামা লেখক, চিন্তাবিদ, সাহিত্যিক, শিল্পী, গবেষকদের দেওয়া হয় যা অত্যন্ত সম্মানজনক বলে বিবেচিত হয়।

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে ২৬ মার্চ শুরু হয়েছে এফওএসডব্লিউএএল’র তিন দিনব্যাপী আঞ্চলিক সাহিত্য সম্মেলন। সম্মেলনে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় অঞ্চলের বিপুল সংখ্যক বিশিষ্ট লেখক-সাহিত্যিক অংশ নিয়েছেন।

সম্মেলনের উদ্বোধনী আয়োজনের পুরস্কারের তাৎপর্য ব্যাখ্যা করে অজিত কৌর বলেন, বাংলাদেশের বিজয় কোনো সাধারণ ঘটনা ছিল না। এ ছিল এক অনন্য বিজয়, যা বাঙালি জাতির পিতা, মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত বঙ্গবন্ধুর আত্মবিশ্বাসে পরিপূর্ণ অনন্য সাহসিকতার পরিচয় বহন করে। তিনি ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও ভাষার অধিকার রক্ষার জন্য লড়াই করেছেন সিংহের মতো। বস্তুত মানুষের জীবনের চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে স্বদেশের মর্যাদা রক্ষা করা। বঙ্গবন্ধুকে আজকের এদিনে এ পুরস্কারে ভূষিত করতে পেরে আমরাও গর্বিত।

অজিত কৌর আরো বলেন, দুনিয়াজুড়ে মানুষ যুদ্ধ পরিচালনা করেছে ভূমি ও অঞ্চলের জন্য অথবা রাজত্ব কিংবা একনায়কত্ব থেকে মুক্ত হওয়ার লক্ষ্যে। কিন্তু বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ছিল আলাদা ও অনন্য, কেননা এই যুদ্ধ ‘মানুষের বুকে স্পন্দিত চেতনা’ রক্ষার জন্য, যা রূপায়িত ও বিকশিত হয় নিজ সংস্কৃতি ও নিজ ভাষার আশ্রয়ে। যার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের মধ্যে নেই, তবে রেখে গেছেন তিন অমূল্য গ্রন্থ, যা এখন প্রকাশিত হয়েছে। সেজন্য এফওএসডব্লিউএএল লিটারেচার ফেস্টিভালের সম্মানজনক পুরস্কারে তাকে ভূষিত করা হয়েছে।

Share This Article


তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে: প্রধানমন্ত্রী

জলবায়ু মোকাবিলায় ‘লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন প্রধানমন্ত্রী

‘ঈদ স্পেশাল ট্রেন’ চলাচল শুরু আজ

ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সোনিয়া গান্ধীর সাক্ষাৎ

মোদিকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ প্রধানমন্ত্রীর

ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি করতে আগ্রহী বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠক সোমবার, গুরুত্ব পাবে দুই দেশের সম্পর্কোন্নয়ন

টানা তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মোদীর শপথ আজ

নয়াদিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

মোদির শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী

মোদির শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আজ দিল্লি যাচ্ছেন শেখ হাসিনা