২৫ মার্চের প্রথম ব্যারিকেড এক বীরত্বের ইতিহাস: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ রাত ০৯:০৯, সোমবার, ২০ মার্চ, ২০২৩, ৬ চৈত্র ১৪২৯

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আমরা মুক্তিযোদ্ধারা হারিয়ে যাবো। কিন্তু তাদের বীরত্বগাঁথা ইতিহাস থেকে যাবে। ১৯৭১ সালের ২৫ শে মার্চে পাকিস্তানিদের বিরুদ্ধে প্রথম ব্যারিকেড একটি বীরত্বের ইতিহাস।

সোমবার কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে মুক্তিযুদ্ধের প্রথম ব্যারিকেড উদযাপন জাতীয় কমিটি কর্তৃক আয়োজিত এক আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে ৬ দফা আন্দোলন যখন তুঙ্গে উঠল, তখন তাকে রুখে দেয়ার জন্য ষড়যন্ত্রমূলক আগরতলা মামলা দেওয়া হয়। সেই মামলার বিরুদ্ধে আমরা তখন ১১ দফা আন্দোলন শুরু করি। সেসময় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব আমাদের অনেক সাপোর্ট দিতেন। ৭ মার্চের ভাষণ দেওয়ার আগে বঙ্গমাতা তাকে বলেছিলেন, তুমি এতদিন ধরে যা বলতে চেয়েছ, সেগুলো সব মন খুলে বলবে। ভাষণের দিনে মঞ্চে ওঠার আগে তাকে অনেক কাগজ দেওয়া হয়েছে। তিনি সেসব কিছুই নেননি। নিজের মতো করে ভাষণ দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার ঘোষণা দেবেন বলেন অনেকে ধারণা করেছিল। কিন্তু দূরদর্শিতার প্রমাণ দেখিয়ে তিনি সেটা করেননি। তিনি শেষ পর্যন্ত সমঝোতার চেষ্টা করেছিলেন। যখন বুঝলেন যে যুদ্ধ অবশ্যম্ভাবী, তখন তিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দিলেন। তিনি তার আগেই আমাদের বার্তা দিয়েছিলেন, আমরা সে বার্তা সবখানেই পৌঁছে দিয়েছি।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ২৫ মার্চে আমাদের পরিকল্পনা ছিল একটা পরিখা খনন করবার। যখন দেখলাম যে সেটা সম্ভব না, তখন আমরা বিশাল সব কড়ই গাছগুলো কাটলাম। গাছ কাটার সময় বিদ্যুতের তারগুলো ছিঁড়ে যায়। তখন পুরো এলাকা ব্ল্যাকআউট হয়ে যায়। একটা বিষয়, সেই ব্যারিকেডের দিন পুলিশ আমাদের সঙ্গে ছিল। হাবিব ব্যাংকের ছাদ থেকে দুইজন পুলিশ পাকিস্তানিদের দিকে ফায়ার করে। ঠিক তখনই পাকিস্তানিরা ফায়ার ওপেন করে। তাদের গোলার মুখে আমরা বেশিক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে পারিনি।

তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের দুইটি দাবি ছিল, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার এবং জয় বাংলাকে রাষ্ট্রীয় স্লোগান করা। দুটোই আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সম্ভব হয়েছে।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোশাররফ হোসেন এমপি, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, জাতীয় সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী প্রমুখ।

বিষয়ঃ বাংলাদেশ

Share This Article


ঢাকায় চীনের ভিসা সেন্টার

রেমিট্যান্স উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি: সমাজকল্যাণমন্ত্রী

বিচ্ছিন্নভাবে দে‌শের স্বার্থ অর্জন করার সুযোগ নেই: সেনা প্রধান

যেভাবেই হোক স্বাস্থ্য সুরক্ষা আইন সংসদে পাস করবো: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সয়াবিন তেলের দাম নির্ধারণ করে দিলো সরকার

যে কারণে জাহাজে করে দেশে ফিরতে চান না ২ নাবিক

ডাল-ভাত খাওয়াতেও ব্যর্থ হয়েছিলেন খালেদা জিয়া: শেখ হাসিনা

কেউ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি: প্রধানমন্ত্রী

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

আগামী সপ্তাহে থাইল্যান্ড সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

৯৬ হাজার শিক্ষক নিয়োগ: আবেদন যেভাবে

গরম নিয়ে যে দুঃসংবাদ দিল আবহাওয়া অফিস