টুঙ্গিপাড়ার সেই খোকা থেকে বাঙালি জাতির পিতা

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ০৯:২৫, শুক্রবার, ১৭ মার্চ, ২০২৩, ৩ চৈত্র ১৪২৯
  • বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই আসে বাঙালির স্বাধীনতা; বিশ্বের বুকে জন্ম নেয় স্বাধীন জাতিরাষ্ট্র ‘বাংলাদেশ’।
  • এক গাছ থেকে আরেক গাছে ঝাঁপ দেয়া, পুকুরে সাঁতার কাটা ছিল নিত্যদিনের কাজ। ফুটবল খেলায়ও পারদর্শী ছিলেন বঙ্গবন্ধু।
  • নিজের আত্মমর্যাদার ওপর আস্থা রাখতেন। বজায় রাখতেন আত্মবিশ্বাস। কখনো ভয়ে পিছ-পা হতেন না।
  • ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর প্রাণ নিলেও অমর হয়ে আছেন তিনি। আছেন বাঙালি চেতনার উজ্জ্বল স্মারক হয়ে।

বাইগার নদীর কোলঘেঁষে সবুজ-শ্যামলে ঘেরা টুঙ্গিপাড়া গ্রাম। আর এই গ্রামেই জন্ম নেন শেখ বংশের ‘আদরের খোকা’। কালক্রমে সেই খোকাই হয়ে ওঠেন বাঙালির ‘মুজিব ভাই’, ‘বঙ্গবন্ধু’ আর জাতির পিতা। তাঁর হাত ধরেই আসে বাঙালির স্বাধীনতা; বিশ্বের বুকে জন্ম নেয় স্বাধীন জাতিরাষ্ট্র ‘বাংলাদেশ’।

১৯২০ সালের ১৭ মার্চ রাত ৮টায় তৎকালীন ফরিদপুর জেলার গোপালগঞ্জ মহকুমার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে শেখ লুৎফর রহমান ও সায়েরা খাতুনের ঘরে জন্মগ্রহণ করেন ‘খোকা’। জন্মের কথা গ্রামের মানুষ ছাড়া আর কেউ জানেননি। কিন্তু ৫৫ বছর বয়সে যখন সেই খোকাকে নিমর্মমভাবে হত্যা করে ঘাতকদল, তখন শোকে আচ্ছন্ন হয়েছে সারা বিশ্ব। তখন তিনি টুঙ্গিপাড়ার খোকা নন, বিশ্বের কাছে পরিচিত একটি নাম ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’।

তবে খোকা থেকে মহানায়ক হয়ে ওঠার নেপথ্যে মুখ্য ভূমিকা রেখেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অদম্য আত্মত্যাগ, অকুতোভয় নেতৃত্ব আর গভীর দেশপ্রেম। তাঁর শৈশবকাল ছিল বেশ মধুর। বাবা-মা ‘খোকা’ ডাকলেও গ্রামের মানুষ তাকে ডাকতেন ‘মিঞা ভাই’। তিনি ছোটবেলায় পাখি ভালোবাসতেন। পাশাপাশি ছিল দুরন্তপনাও। এক গাছ থেকে আরেক গাছে ঝাঁপ দেয়া, পুকুরে সাঁতার কাটা ছিল নিত্যদিনের কাজ। ফুটবল খেলায়ও পারদর্শী ছিলেন বঙ্গবন্ধু।

ব্যক্তিজীবনেও অত্যন্ত সাদাসিধে ও সরল মনের মানুষ ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। দেশ ও দেশের মানুষের সেবা করাই ছিল তার ব্রত। তিনি সবসময় নিজের আত্মমর্যাদার ওপর আস্থা রাখতেন। বজায় রাখতেন আত্মবিশ্বাস। কখনো ভয়ে পিছ-পা হতেন না। বুকে রাখতেন সৎ সাহস। সর্বদা সোচ্চার ছিলেন অন্যায়ের বিরুদ্ধে। এজন্যই জনগণের মুখে হাসি ফোটাতে পেরেছিলেন তিনি। হয়েছেন প্রিয় নেতা।

ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিতেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। স্কুল জীবনেই নেন রাজনৈতিক দীক্ষা। গোপালগঞ্জের মিশনারি স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে অধ্যয়নকালে প্রথম জেল খাটেন তিনি।

১৯৪২ সালে ম্যাট্রিক পাসের পর কলকাতা ইসলামিয়া কলেজে পড়ার সময় হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও আবুল হাশিমের মতো রাজনৈতিক নেতাদের সান্নিধ্যে আসেন বঙ্গবন্ধু। ১৯৪৬ সালে একই কলেজে ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে স্বাধীনতা লাভের পর ঢাকায় ফিরে নতুন রাজনৈতিক চিন্তা-চেতনা নিয়ে অগ্রসর হন শেখ মুজিবুর রহমান। সহকর্মীদের নিয়ে ১৯৪৮ সালে গঠন করেন ছাত্রলীগ। ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন আওয়ামী লীগ গঠিত হলে যুগ্ম সম্পাদকের পদ পান তিনি।

১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন, ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন, ১৯৫৮ সালের সামরিক শাসনবিরোধী আন্দোলন, ১৯৬৬ সালের ৬-দফা ও পরবর্তী সময়ে ১১ দফা আন্দোলন এবং ১৯৬৯ সালে গণঅভ্যুত্থানসহ প্রতিটি গণতান্ত্রিক ও স্বাধিকার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন শেখ মুজিবুর রহমান। ১৯৬৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি তাকে ‘বঙ্গবন্ধু’ উপাধিতে ভূষিত করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দীর্ঘ ৯ মাস লড়াই করার পর ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিজয় অর্জন করে বাঙালিরা।

তবে স্বাধীন বাংলাদেশে বেশিদিন দেশ গঠনের কাজ করে যেতে পারেননি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। মাত্র ৫৫ বছর বয়সেই ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ধানমন্ডির বাসভবনে কতিপয় বিপথগামী সেনা কর্মকর্তার হাতে সপরিবারে নিহত হন তিনি। তবে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর প্রাণ নিলেও অমর হয়ে আছেন তিনি। আছেন বাঙালি চেতনার উজ্জ্বল স্মারক হয়ে। তার দেখানো পথেই কন্যা শেখ হাসিনার হাত ধরে উন্নয়নের অগ্রগতিতে আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশ। মহান এই মানুষটির জন্মদিন উপলক্ষে ১৭ মার্চ সারাদেশে পালিত হয় জাতীয় শিশু দিবস, যেন তার আদর্শের উজ্জীবিত হয়ে গড়ে ওঠে এ দেশের সকল শিশু।

Share This Article

‘সকল ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে’

ইসরায়েলে অস্ত্র বহনকারী জাহাজকে নোঙর করতে দেয়নি স্পেন

সব ধরনের জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ পুলিশের নিয়ন্ত্রণে: আইজিপি

বাংলাদেশের রূপান্তরের রূপকার শেখ হাসিনা : ওবায়দুল কাদের

বিএনপি পাকিস্তানের দোসর হয়ে জনগণকে শোষণ করত: আইনমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রের ইউটার্ন না কৌশল পরিবর্তন

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসী তৎপরতার তথ্য পেলেই অভিযান : র‍্যাব

‘সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য বিনিময়ের মাধ্যমে বাঙালি সংস্কৃতি ঋদ্ধ হবে’

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার বিরূপ প্রভাব ঠেকাতে আসছে আইন : প্রতিমন্ত্রী

অবশেষে জানা গেল নরেন্দ্র মোদি কেন সংবাদ সম্মেলন করেন না


শেখ হাসিনাকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

কুমিল্লায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস খাদে, নিহত ৫

দেশের আট অঞ্চলে রাত ১টার মধ্যে ৮০ কি.মি. বেগে ঝড়ের আভাস

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ

বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন একদিন বিশ্বের রোল মডেল হবে: ইসি হাবিব

কার্বন ক্রেডিট বাজারে ভূমিকা রাখতে প্রয়োজন কার্যকর নীতি-বিনিয়োগ

জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলায় নারীর অবদান অপরিহার্য: পরিবেশমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর ১০৪তম জন্মদিনে লোক-এর বর্ণাঢ্য তারুণ্যের উৎসব

যে কারণে ভোটার উপস্থিতি কম জানালেন ইসি হাবিব

ডোনাল্ড লুর পর ফখরুলের বক্তব্যের কোনো মূল্য নেই: ওবায়দুল কাদের

২ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন

বিদেশি ঋণনির্ভর প্রকল্পের অগ্রগতি জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর