সিলিকন ভ্যালির পর এবার বন্ধ সিগনেচার ব্যাংক

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৩:৫০, সোমবার, ১৩ মার্চ, ২০২৩, ২৮ ফাল্গুন ১৪২৯

সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার পর এবার বন্ধ হলো যুক্তরাষ্ট্রের আরো একটি জনপ্রিয় ব্যাংক। রবিবার (১২ মার্চ) বন্ধ হয়ে যায় সিগনেচার ব্যাংক। নিউইয়র্ক ডিএফএস সুপারিনটেনডেন্ট অ্যাড্রিয়েন এ. হ্যারিস বলেছেন, আমানতকারীদের সুরক্ষার জন্য সিগনেচার ব্যাংকের গচ্ছিত অর্থ ও যাবতীয় নথিপত্র অধিগ্রহণ করেছে সরকার।

 

গ্রাহকদের মাঝে জনপ্রিয় ছিল নিউইয়র্কের সিগনেচার ব্যাংক। বহু মানুষ এই ব্যাংকে অর্থ সঞ্চিত রেখেছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি ব্যাংকটির অগ্রগতি থমকে যায়। মার্কিন প্রশাসন অবশ্য গ্রাহকদের আশ্বস্ত করেছে। সোমবার থেকেই তারা তাদের অর্থ সংগ্রহ করতে পারবেন বলে জানানো হয়েছে। সেই সঙ্গে ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে সচল রাখতে দেশের অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোকেও সাহায্যে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে প্রশাসন।

এ হ্যারিস জানান, সিগনেচার ব্যাংক এফডিআইসি দ্বারা বীমাকৃত, যার মোট সম্পদ প্রায় ১১০.৩৬ বিলিয়ন ডলার এবং মোট আমানত প্রায় ৮৮.৫৯ বিলিয়ন ডলার। এদিকে গ্রাহকদের চাহিদা মেটাতে বাড়তি অর্থের জোগান দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে মার্কিন ফেডেরাল রিজার্ভ। আমেরিকান ট্রেজারি ও ফেডারেল ডিপোজিট ইনস্যুরেন্স করপোরেশন যৌথ বিবৃতিতে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিকে রক্ষা করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ আমরা নিচ্ছি। আমাদের ব্যাংকিং ব্যবস্থার ওপর গ্রাহকদের আস্থা ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক বন্ধ হয়ে যায়। তার নথিপত্রও অধিগ্রহণ করেছে সরকার। ২০০৮ সালের বিশ্বব্যাপী আর্থিক মন্দার পর এ ঘটনাকে খুচরো ব্যাংকিং ব্যবস্থায় সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা বলা হচ্ছে। প্রযুক্তিভিত্তিক স্টার্টআপগুলোতে বিনিয়োগের মাধ্যমে অল্প সময়ে বিপুল অর্থ সঞ্চয় করেছিল সিলিকন ভ্যালি ব্যাংক। আমেরিকার বন্ডে এই ব্যাংক বিনিয়োগ করেছিল। কিন্তু মূল্যস্ফীতির হার কমাতে ফেডারেল রিজার্ভ গত বছর সুদের হার বাড়াতে শুরু করে, যার ফলে বন্ডের দর কমে যায়।

করোনা মহামারির পরে স্টার্টআপগুলোও ক্রমে দুর্বল হয়ে পড়ে। ব্যাংক থেকে গ্রাহকেরা সঞ্চিত অর্থ তুলে নেন। গ্রাহকদের টাকার জোগান দিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে নিজেদের শেয়ার বিক্রি করতে হয়। ফলে দ্রুত ব্যাংকের অর্থে টান পড়ে। সিলিকন ভ্যালি ব্যাংকের একটি পরিসংখ্যান দেখা যায়, ব্যাংকটি কয়েক দিনে প্রায় ২০০ কোটি ডলার হারিয়েছে। ফলে ব্যাংকের বিপর্যয় এক প্রকার নিশ্চিত হয়ে পড়ে। একই পরিণতি হলো সিগনেচার ব্যাংকেরও।

Share This Article


পারমাণবিক সক্ষমতা আরও বাড়াচ্ছে ইরান: আইএইএ

হাজিদের জন্য উড়ন্ত ট্যাক্সি চালু করল সৌদি

জর্ডানি করিডোর ব্যবহার করছে ইসরায়েল, খবর প্রকাশ করায় সাংবাদিকের জেল

খরায় শুকিয়ে গেল হ্রদ, বিপুল মাছের মৃত্যু

ন্যাটোর পরবর্তী মহাসচিব হতে পারেন মার্ক রুট

রোবটের গতানুগতিক ধারণা ভাঙতে চায় চীন

জাতিসংঘের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বহিষ্কারের কথা ভাবছে ইসরায়েল

গাজায় ৫ বছরের কম বয়সী ৮ হাজার শিশু তীব্র অপুষ্টিতে ভুগছে

পশ্চিমাদের হটিয়ে সমুদ্র দখল করছে তুর্কি যুদ্ধজাহাজ!

ইসরায়েলি হামলায় হিজবুল্লাহর জ্যেষ্ঠ কমান্ডার নিহত

রাশিয়ার হয়ে যুদ্ধ করতে গিয়ে দুই ভারতীয় নিহত

দোষী সাব্যস্ত বাইডেনের ছেলে, হতে পারে ২৫ বছরের কারাদণ্ড