বঙ্গবন্ধু ছিলেন ক্রীড়াঙ্গনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক: সেনাপ্রধান

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ১২:০৫, রবিবার, ৫ মার্চ, ২০২৩, ২০ ফাল্গুন ১৪২৯

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান খেলাধুলার জন্য ছিলেন নিবেদিতপ্রাণ। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর জাতির পিতা দেশের ক্রীড়াঙ্গন উন্নয়ন ও আধুনিক কাঠামোতে রূপান্তরিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ ও কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলেন। 

তিনি বলেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের ক্রীড়াঙ্গনকে এগিয়ে নিতে তিনি ১৯৭২ সালে গঠন করেন ‘ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ সংস্থা’। সে সময় একে একে গড়ে ওঠে সাঁতার, হকি, ভলিবল, অ্যাথলেটিকস্, টেনিস ইত্যাদি ফেডারেশন। এক কথায় রাষ্ট্রনায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানই ক্রীড়াঙ্গনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন।

শনিবার (৪ মার্চ) বিকালে আর্মি স্টেডিয়ামে শেখ কামাল ২য় বাংলাদেশ যুব গেমস্-২০২৩ এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেনাপ্রধান বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের ক্রীড়াঙ্গন। দেশের বিভিন্ন স্থান হতে প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের খুঁজে বের করাই এ আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য এবং নতুন প্রতিভার সমন্বয়ে আমরা জাতীয় দলগুলোকে সমৃদ্ধ করতে পারবো।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র শেখ কামাল ছিলেন দেশের অন্যতম ক্রীড়া সংগঠক ও তারুণ্যের প্রতীক। তার যৌবন দীপ্ত ক্রীড়াশৈলী দেশের তরুণদের প্রতিনিয়ত অনুপ্রাণিত করে। এ প্রজন্মের তরুণরাও খেলাধুলার বিভিন্ন ক্ষেত্রে তাদের প্রতিভা ও ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করে আগামীতে হয়ে উঠবে অনন্য সাধারণ ক্রীড়াবিদ।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার ক্রীড়াঙ্গনের সম্প্রসারণ এবং খেলাধুলার মান উন্নয়নে অনেক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেছে এবং করে যাচ্ছে। দেশের তৃণমূল পর্যায় থেকে তরুণ প্রতিভাবান ছেলে-মেয়েরা যাতে তাদের প্রতিভা বিকাশের সুযোগ পায়, সেজন্য দেশের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন ধরণের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, কর্মসূচি ও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে বর্তমান সরকার। ইতোমধ্যে বাংলাদেশের নারীরা সাফ অনূর্ধ্ব -১৯ ফুটবল, সাফ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ এবং সাফ অনূর্ধ্ব -২০ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। সম্প্রতি কাজাকিস্তানে অনুষ্ঠিত এশিয়ান ইনডোর অ্যাথলেটিকস্ চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের ইমরানুর রহমান ৬০ মিটার স্প্রিন্টে স্বর্ণপদক অর্জন করে। এছাড়াও বাংলাদেশের প্রতিযোগীরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতায় কৃতিত্বের সাথে অংশগ্রহণ করে দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনছে।

আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) জানায়, প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) প্রধান পৃষ্ঠপোষক শেখ হাসিনার সার্বিক নির্দেশনা এবং বিওএ’র সার্বিক ব্যবস্থাপনায় শেখ কামাল ২য় বাংলাদেশ যুব গেমস্-২০২৩ তিনটি পর্বে অনুষ্ঠিত হয়েছে। চূড়ান্ত পর্বে ২৪টি ডিসিপ্লিনের মধ্যে ব্যাডমিন্টন, ভলিবল, স্কোয়াস, রাগবি, শ্যুটিং, জুডো, হকি, হ্যান্ডবল, আর্চারি, ভারোত্তোলন এবং সাইক্লিনিং ডিসিপ্লিনের চূড়ান্ত পর্বের প্রতিযোগিতা ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।

Share This Article


বাংলাদেশ-ভারত ভবিষ্যৎ উন্নয়নকে এক সুতোয় গাঁথার ‘ভিশন ডকুমেন্ট’ ঘোষণা

কৃষক-প্রবাসী নয়, কালোটাকার মালিক অভিজাতরা: সংসদে জাহিদ মালেক

ঢাকা-নয়াদিল্লি টেকসই ভবিষ্যৎ নিশ্চিতে যৌথ দৃষ্টিভঙ্গিতে সম্মত: প্রধানমন্ত্রী

দিল্লি থেকে দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী

চট্টগ্রাম থেকে বাস, রাজশাহী থেকে ট্রেন যাবে কলকাতায়

নয়াদিল্লি থেকে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী

ভারতের সঙ্গে উন্নয়ন ও বন্ধুত্বের পথে নবযাত্রা শুরু হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

শুধু আইন প্রণয়নের মধ্যে সংসদ সদস্যদের কাজ সীমাবদ্ধ নয় : স্পিকার

২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ উন্নত সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরিত হবে

মোদীর সঙ্গে বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

জনগণের কল্যাণে সহযোগিতার বিষয়ে একমত ঢাকা-দিল্লি

বন্যাদুর্গতদের পর্যাপ্ত সরকারী সহায়তার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর