জাবি মাতিয়ে গেলেন অঞ্জন দত্ত

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ০৯:৫০, শনিবার, ৪ মার্চ, ২০২৩, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৯

ওপার বাংলার নন্দিত গায়ক, অভিনেতা ও নির্মাতা অঞ্জন দত্ত মাতিয়ে গেলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সেলিম আল দীন মুক্তমঞ্চ।  শুক্রবার (৩ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩১তম ব্যাচের ‘ব্যাচ ডে’ উপলক্ষে আয়োজিত ‘থার্টিফাস্ট ফেস্টে’ গান পরিবেশন করতে জাহাঙ্গীরনগরে এসেছিলেন এই কিংবদন্তি।

 

সন্ধ্যা ৭টায় অনুষ্ঠান শুরু হলেও দুপুর থেকেই মঞ্চে ভীড় জমাতে শুরু করেন অঞ্জন ভক্তরা।

‘অঞ্জন দত্ত আসবেন শুনে দুপুর ২টা থেকে জায়গা ধরে দাঁড়িয়ে আছি, ওনাকে রিহার্সেল করতে দেখেই এত বেশি ভাল লাগছে! কনসার্ট শেষ না করে যাচ্ছি না এখান থেকে’ বলছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী সাদিয়া আফরিন সুমি।

বরিশাল থেকে অঞ্জন দত্তের কনসার্ট শুনতে আসেন বরিশাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের শিক্ষার্থী মোহাম্মদ তারিফ। তিনি বলেন, ‘কাল বিকালে ফেসবুকের মাধ্যমে অঞ্জন দত্ত জাহাঙ্গীরনগর আসবেন জানতে পারি। এরপর কোন কিছু চিন্তা না করেই রাতে লঞ্চে উঠে চলে এসেছি। ওনার যে বয়স হয়েছে তাতে দ্বিতীয়বার আর দেখার সুযোগ হবে কিনা বলা যায় না। ওনার গান আমার অসম্ভব ভাল লাগে তাই এসে পড়লাম।’

সাউন্ড চেক করতে দুপুর আড়াইটার দিকে মঞ্চে আসেন অঞ্জন আর তার ব্যান্ড। এই সংবাদ ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়তেই মুহূর্তের মধ্যে ভরে যায় মুক্তমঞ্চ। যদিও সাউন্ড চেক করে টিএসসি’র গেস্টরুমে বিশ্রাম নিতে চলে যান অঞ্জন। কিন্তু ততক্ষণে অঞ্জনের গানের কিঞ্চিৎ স্বাদ পেয়ে গেছে জাহাঙ্গীরনগরবাসীরা। অঞ্জন আসবেন বলে সন্ধ্যা পর্যন্ত অপেক্ষার প্রহর গুনতে থাকেন সবাই।

সন্ধ্যা গড়াতে না গড়াতেই তিল ধারণের জায়গা বাকি ছিলনা, মুক্তমঞ্চের দর্শকসারি থেকে শুরু করে সেন্ট্রাল ফিল্ড, ক্যাফেটেরিয়ার ঢাল পর্যন্ত। রাত ৭:৫৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. নূরুল আলম, ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রের সদ্যবিদায়ী পরিচালক অধ্যাপক ড. আলমগীর কবীর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক আ স ম ফিরোজ উল হাসানের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের পরেই কানায় কানায় পূর্ণ মুক্তমঞ্চে প্রবেশ করেন অঞ্জন দত্ত।

বিপুল করতালি, উল্লাস ও শুভেচ্ছা স্মারকের মধ্য দিয়ে অঞ্জন দত্তকে বরণ করে নেওয়া হয় জাবির মুক্তমঞ্চে।

এরপর ‘শুনতে কি পাও’ গানের মাধ্যমে শুরু করে ‘তুমি না থাকলে’, ‘বসে আছি ইস্টিশানেতে’, ‘রঞ্জনা আমি আর আসবো না’, ‘বেইলি রোডের ধারে’, ‘আমি বৃষ্টি দেখেছি’সহ একেরপর এক কালজয়ী গান গেয়ে মুক্তমঞ্চের দর্শকদের মন জয় করে নেন অঞ্জন।

‘বেলা বোস’ ও ‘তুমি আসবে বলে’ গানের মধ্য দিয়ে মন্ত্রমুগ্ধকর স্মরণীয় এই রাতের ইতি টানেন তিনি।

গানের ফাঁকে মুক্তমঞ্চের দর্শকদের উদ্দেশ্যে অঞ্জন দত্ত বলেন, ‘জীবনের এই ঝামেলা এই শহুরে চাপের মধ্যে মুখ হাসিটা ধরে রাখতে হবে, সিনাইল হয়ে গেলে চলবে না। এটাই লাইফ।’

কনসার্ট শেষে কেমন লাগলো জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী জয় ভূষণ দেবনাথ বলেন, ‘এই ছোট্ট জীবনে মুক্তমঞ্চে অঞ্জন দত্তের কনসার্ট দেখে ফেলছি। আমি আমার অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না, আপাতত আসলে আর চাওয়ার মত কিছু নেই।’

১৯৫৩ সালে জন্ম নেয়া ৭০ বছর বয়সী অঞ্জন দত্তের জন্ম কলকাতায়, ছোটবেলা কেটেছে দার্জিলিঙে। এরপর কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে পড়াশুনা শেষ করেন অঞ্জন দত্ত। ১৯৮১ সাল থেকে সিনেমায় অভিনয় করছেন, ১৯৯৪ সালে ‘শুনতে কি পাও’ অ্যালবামের মধ্য দিয়ে প্রবেশ গানের জগতে এবং ১৯৯৮ সাল থেকে সিনেমা নির্মাণও শুরু করেন।

দুই বাংলায় সমান জনপ্রিয় এই শিল্পী। তার নির্মিত বিখ্যাত ছবির মধ্যে রয়েছে ‘ম্যাডলি বাঙালি’, ‘রঞ্জনা আমি আর আসবো না’, ‘দত্ত ভার্সাস দত্ত’। এছাড়া তিনি অভিনয় করেছেন নির্বাক, শাহ্ জাহান রিজেন্সি, এক যে ছিল রাজার মত সিনেমায়। 

বিষয়ঃ তারকা

Share This Article


সিলেট বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষা ৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত

এসএসসির খাতা চ্যালেঞ্জের ফল প্রকাশ, জানা যাবে যেভাবে

১৭ দিনের ছুটিতে যাচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

যৌন হয়রানির অভিযোগে চাকরি হারালেন রাবির চিকিৎসক

২০২৬ সালের এসএসসি পরীক্ষা হবে নতুন নিয়মে: শিক্ষামন্ত্রী

ইংরেজি মিডিয়াম স্কুলে বিকৃত ইতিহাস পড়ানো হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী

এসএসসি পরীক্ষা ফেব্রুয়ারির পরিবর্তে ডিসেম্বরে

এইচএসসি পরীক্ষা: ২৪ মাসের পরীক্ষা ১৭ মাসে!

‘শরীফার গল্প’ বাদ দেওয়ার সুপারিশ বিশেষজ্ঞ কমিটির

চবির ঝর্ণায় ডুবে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

পা দিয়ে লিখে জিপিএ-৫, চমকে দিল রাব্বি

এসএসসির ফল: খাতা চ্যালেঞ্জ করা যাবে সোমবার থেকে