আইএমএফের আরেক ‘কঠোর শর্ত’ মেনে নিল পাকিস্তান

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ১২:৫৯, রবিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৯

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের কাছ থেকে ৬৫০ কোটি (৬ দশমিক ৬ বিলিয়ন) ডলার ঋণ পেতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে পাকিস্তান। তবে ঋণ দেওয়ার আগে কঠিন কিছু শর্ত দিয়েছে ওয়াশিংটনভিত্তিক আর্থিক সংস্থাটি।

যার মধ্যে অন্যতম ছিল— কেন্দ্রীয় ব্যাংককে সুদের হার বৃদ্ধি করতে হবে। আইএমএফের ঋণ না পেলে দেশ দেউলিয়া হয়ে যেতে পারে, এমন শঙ্কা থেকে সুদের হার বাড়ানোর শর্ত মেনে নিয়েছে পাকিস্তান সরকার।

পাক সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউন ২৬ ফেব্রুয়ারি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, ২০০ বেসিস পয়েন্টে সুদের নতুন হার ১৭ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৯ শতাংশে বৃদ্ধি করা হয়েছে। ১৯৯৬ সালের অক্টোবরে একবার সুদের হার নির্ধারণ করা হয়েছিল ১৯ দশমিক ৫ শতাংশ। এখন প্রায় ২৫ বছর আগের পুরনো রেকর্ডের দ্বারপ্রান্তে চলে এসেছে ইসলামাবাদ।

পাকিস্তানের অর্থ মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছিল, আইএমএফের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভার্চ্যুয়ালি একটি বৈঠক করেছেন তারা। তখনই তারা জানিয়েছিলেন, সুদের হার ২ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে।

আইএমএফ ঋণ দিতে যেসব শর্ত দিয়েছিল, সেগুলোর প্রায় বেশিরভাগই মেনে নিয়েছে পাকিস্তান সরকার। বিদ্যুৎ খাত নিয়ে যে কয়েকটি ইস্যু রয়েছে সেগুলোও সমাধানের চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে। বিষয়টি সুরাহা হয়ে যাওয়ার পরই আইএমএফের সঙ্গে স্টাফ-লেভেল চুক্তি হবে।

Share This Article


ইসরায়েলে অস্ত্র বহনকারী জাহাজকে নোঙর করতে দেয়নি স্পেন

অবশেষে জানা গেল নরেন্দ্র মোদি কেন সংবাদ সম্মেলন করেন না

ইসরায়েলি হামলায় আরো ৩৯ ফিলিস্তিনি নিহত

২৩ শতাংশ প্রার্থীর বিরুদ্ধে ফৌজিদারি মামলা, কোটিপতি ২২৭ জন

স্কুলে ‌‘লিঙ্গ পরিচয় শিক্ষা’ নিষিদ্ধ করছে ইংল্যান্ড

৩০ বছর আগে মারা যাওয়া মেয়ের জন্য পাত্র চেয়ে বিজ্ঞাপন!

পুতিন-শি’র বন্ধুত্ব আরও অটুট, দিলেন যেসব বার্তা

ক্যাম্পকে ‘যুদ্ধক্ষেত্র’ ভেবে বড় হচ্ছে যে শিশুরা

জাবালিয়ায় ১২ ইসরায়েলি সেনাকে হত্যার দাবি হামাসের

অর্থসংকটে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান বিক্রি করে দিচ্ছে পাকিস্তান

স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে

দুর্নীতির মামলায় জামিন পেলেও কারাগারেই থাকতে হচ্ছে ইমরান খানকে