গাড়িতে বসেই পদ্মা সেতুর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী!

৯০ এর দশকে পদ্মা সেতু নির্মাণের জন্য যখন বিশ্ব ব্যাংক এবং এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক সরাসরি না বলে দেয়, তখন জাপানকে অনুরোধ করেছিল বাংলাদেশ। 

ওই সময়ে সাবেক অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ও বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা মসিউর রহমানের কাছে চিঠি দিয়ে বাংলাদেশের অগ্রাধিকার প্রকল্প সম্পর্কে জানতে চেয়েছিল জাপান। 

 

 

প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা তখন সে বার্তা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অফিসে যান এবং সেখানে গিয়ে দেখলেন ওই মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী সংসদে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

পরে মসিউর রহমান প্রধানমন্ত্রীকে অগ্রাধিকার প্রকল্প সম্পর্কে বলতে শুরু করলে প্রধানমন্ত্রী  তাঁকে গাড়িতে উঠতে বলেন যাতে  গাড়িতে বসে যেতে যেতেই এ বিষয়ে কথা বলা যায়।

মসিউর রহমান বলেন, ‘গাড়িতে বসে প্রধানমন্ত্রী তখন জানতে চাইলেন— রাজধানীতে বাইরে থেকে লোক না এনে যদি রাজধানীকেই মানুষের কাছে নিয়ে যাওয়া যায়, এতে যদি সময় সাশ্রয় হয়, তাহলে অবশ্যই সেটি ভালো সিদ্ধান্ত হবে। আর এটা পদ্মাসেতুর মাধ্যমেই সম্ভব হবে।’ এটাই ছিল পদ্মা সেতু সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর প্রথম প্রকাশ।

প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টার মতে, মানুষের কল্যাণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর যে অন্তর্নিহিত ইচ্ছা, সেটির প্রাথমিক প্রতিফলন ছিল ওই সিদ্ধান্ত। আর ওই সিদ্ধান্তটি মূলত ওই মুহূর্তেই তিনি নিয়ে নিয়েছিলেন। তাঁর এ দৃঢ়চেতার জন্যই আজ দৃশ্যমান পদ্মা সেতু।

Share This Article


করোনায় একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ২১৪

সাকিবকে পাপনের হুঁশিয়ারি

আগস্ট মাস আসলেই বিএনপি উন্মাদ হয়ে যায় : বাহাউদ্দিন নাছিম

জ্বালানি তেলের লাভের টাকায় এফডিআর কেন!

৫ লাখ কর্মী নেবে মালয়েশিয়া, বেতন ৬০ হাজারেরও বেশি!

৭ বছর ধ‌রে পলাতক জেএমবির ওয়ারেন্টভূক্ত আসামি গ্রেপ্তার

দেশে বুস্টার ডোজ নিয়েছেন ৪ কোটির বেশি মানুষ

কেন্দ্রীয় ব্যাংক এর নির্দেশনা:সহজেই রেমিটেন্স পাঠাতে পারবেন প্রবাসীরা

গরু পাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডল গ্রেপ্তার

বজ্রসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস

ছেলের ছবি প্রকাশ করলেন পরীমণি, জানালেন নাম

জ্বালানি তেল নিয়ে প্রথম আলোর বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা!

বেশি দামে আটা বিক্রি, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

কাশ্মিরে সামরিক ঘাঁটিতে হামলা, ৩ ভারতীয় সেনা নিহত

হেঁটে ময়মনসিংহ থেকে টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন মোস্তফা