ডলার কারসাজি ঠেকাতে তৎপর কেন্দ্রীয় ব্যাংক, মাঠে ১০ টিম

দেশে চলমান ডলার সংকট নিয়ে কারসাজি ঠেকাতে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। মঙ্গলবার এক ডলার কিনতে রেকর্ড ১১২ টাকা দিতে হয়েছে—এমন খবর পাওয়ার পরই বিষয়টি ভাবিয়ে তোলে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে। এরপরই বাংলাদেশ ব্যাংকের ১০টি পরিদর্শক দল ডলার কারসাজি রোধে মাঠে নামে।

এ তথ্য নিশ্চিত করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘খোলাবাজারে এক ডলারের বিপরীতে দিতে হচ্ছে ১১২ থেকে ১১৪ টাকা এমন খবর পাওয়ার পর বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে তদারকি কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের ১০টি দল মানি চেঞ্জার হাউজগুলোতে তদারকি চালায়। ডলার সংরক্ষণ এবং লেনদেনের তথ্যও সংগ্রহ করা হয়৷’

 

সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘বাজার স্থিতিশীল রাখতে নিয়মিত ডলারের জোগান দেওয়া হচ্ছে। তারপরও ব্যাংক আর খোলাবাজারে ডলারের ব্যবধান অস্বাভাবিক। এখানে কেউ কৃত্রিম সংকট তৈরি করছে কি না সেটাই খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

বেশি টাকা দিলে বাজারে ডলার পাওয়া যাচ্ছে অর্থাৎ মার্কেটে ডলার আছে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র বলেন, ‘আন্তব্যাংকে যে ডলার দর আছে ৯৪.৭০ টাকা আর তা খোলাবাজারে কেন এত বেশি যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। ‘

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক বলেন, ‘সরেজমিনে তদারকি দল যে রিপোর্ট দেবে সেখানে যদি কোনো ধরনের কারসাজির প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে কেন্দ্রীয় ব্যাংক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।’

এদিকে গত দুই মাসে টাকার বিপরীতে ১১ দশমিক ৬৭ শতাংশ দাম বাড়ে ডলারের। সর্বশেষ গত সোমবার ২৫ পয়সা বেড়ে ডলারের দাম দাঁড়ায় ৯৪.৭০ টাকা। বুধবার ডলারের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বেঁধে দেয়া আন্তব্যাংক দর ছিল ৯৪ টাকা ৭০ পয়সা।

বুধবার বেঁধে দেয়া এই দামে ব্যাংকগুলোর কাছে ডলার বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তবে ব্যাংকগুলো এই দরের চেয়ে ১০ থেকে ১৩ টাকা বেশি দামে বিক্রি করেছে আন্তর্জাতিক মুদ্রাটি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বুধবার ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড মাত্র এক দিনের ব্যবধানে ৭ টাকা বাড়িয়ে ১০৮ টাকায় নগদ বিক্রি করেছে প্রতি ডলার। এর আগের দিন অর্থাৎ মঙ্গলবার দাম ছিল ১০১ টাকা। আইএফআইসি ও সিটি ব্যাংক থেকে এক ডলার কিনতে বুধবার গুনতে হয় ১০৭ টাকা।

রাষ্ট্রায়ত্ত রূপালী ব্যাংক ১০৩ টাকা দরে নগদ ডলার বিক্রি করেছে। অন্য তিন সরকারি ব্যাংক সোনালী, জনতা ও অগ্রণী ব্যাংক বিক্রি করেছে ১০২ টাকায়। ব্যাংক ও খোলাবাজারে গতকালের চিত্র বিবেচনা করলে দেখা যায়, এদিন ব্যাংকে ডলারপ্রতি গুনতে হয় ১০৮ টাকা, যা খোলাবাজারের দরের সমান।

Share This Article


কুখ্যাত ওয়াগনার ঘাঁটি লক্ষ্য করে ইউক্রেনের হামলা

রাতের আঁধারে ইসরায়েলের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, সিরিয়ার ৩ সেনা নিহত

হিরো আলম অবশ্যই ট্যালেন্ট: মিশা সওদাগর

সাভারে এখনো বঙ্গবন্ধুর খুনির বাবার নামে চলছে স্কুল

রাজধানীর চকবাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে

সুন্দর বাংলাদেশ গড়তে হলে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে হবে : সোহেল তাজ

কত দেশ এখন মন্দার শঙ্কায়

টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

রাজধানীর চকবাজারে পলিথিন কারখানায় আগুন

কিমকে চিঠিতে কী লিখেছেন পুতিন?

তাজমহলে একদিনে রেকর্ড ৮০ হাজার দর্শনার্থী!

মালদ্বীপের হেড কোচ হলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটার

মুক্তির সংগ্রামে নেতৃত্বদানকারী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ: কাদের

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের শহীদদের শ্রদ্ধা প্রধানমন্ত্রীর