রাষ্ট্রদূত বদলে কি সম্পর্ক উন্নয়ন হবে?

  বিডি পিপলস ভয়েস ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৫:১১, বৃহস্পতিবার, ১৪ জুলাই, ২০২২, ৩০ আষাঢ় ১৪২৯

বাংলাদেশ-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের তীব্র টানাপোড়েনের মধ্যে ওয়াশিংটনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত বদল হলো। শহিদুল ইসলামকে সরিয়ে দিয়ে নতুন রাষ্ট্রদূত করা হয়েছে মোহাম্মদ ইমরানকে। মোহাম্মদ ইমরান একজন দক্ষ কূটনীতিক হিসেবে পরিচিত। ভারতের হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করার সময় তিনি সুনাম কুড়িয়েছেন। বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার ক্ষেত্রে যাদের ভূমিকা উল্লেখযোগ্য তাদের মধ্যে অবশ্যই মোহাম্মদ ইমরানের নাম আসবে। অন্যদিকে শহিদুল ইসলাম মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিযুক্ত হওয়ার পর থেকেই নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। বিশেষ করে তার সঙ্গে বিএনপি-জামায়াতের সম্পৃক্ততার অভিযোগ সেখানে খুব জোরেশোরেই উঠেছিল। এসব কিছুর প্রেক্ষিতেই সম্ভবত তাকে বদলি করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশ-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের টানাপোড়েনের যে অবস্থা, সেই বাস্তবতায় কেবলমাত্র রাষ্ট্রদূত বদলে কি সম্পর্ক উন্নয়ন করা সম্ভব হবে? এই প্রশ্নটিই এখন সর্বমহলে আলোচিত হচ্ছে।

বাংলাদেশ-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক এখন সবচেয়ে টানাপোড়েনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে বলে কূটনৈতিক মহল মনে করেন। বিশেষ করে একের পর এক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন রকম মন্তব্য করছে, বক্তব্য দিচ্ছে। সর্বশেষ মার্কিন প্রতিবেদনে আগামী নির্বাচনকে গুরুত্বপূর্ণ বলা হয়েছে। বলা হয়েছে বাংলাদেশে কর্তৃত্ববাদী শাসনের পথে যাবে নাকি গণতন্ত্র বিকশিত হবে, তা নির্ভর করবে আগামী নির্বাচনের ওপর। নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাস বাংলাদেশে এসেই বাংলাদেশের আগামী নির্বাচন, মানবাধিকার, সুশাসন ইত্যাদি নিয়ে নানা কথা বলছেন। তিনি ঢাকায় আসার পর এপর্যন্ত অন্তত দুই দফায় নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। এছাড়াও সুশীল সমাজের সাথে তিনি প্রতিনিয়ত বৈঠক করে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সুশাসন এবং গণতন্ত্র তাদের প্রধান এজেন্ডা এবং সেখানে বাংলাদেশে তারা একটি অর্থবহ অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চায় বলেও প্রকাশ্যে ঘোষণা করেছে। অন্যদিকে বাংলাদেশও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের টানাপোড়েনের বিষয়টি নিয়ে কোনো লুকোচুরি করছে না।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একাধিকবার তার বক্তৃতায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থানের সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উচিত তাদের নিজেদের চরকায় তেল দেওয়া। তাদের নিজেদের সমস্যাগুলোর সমাধান করা। এছাড়া ঈদের আগে প্রধানমন্ত্রী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাম্প্রতিক নিষেধাজ্ঞার কঠোর সমালোচনা করেছেন। তিনি ঈদের আগে এক বক্তৃতায় বলেছেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একটি দেশকে শাস্তি দেওয়ার জন্য বিশ্বের অসংখ্য মানুষকে কষ্ট দিচ্ছে এবং এটি মানবাধিকারের লঙ্ঘন। প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের প্রতিবাদ অবশ্য মার্কিন দূতাবাস থেকে এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি। তবে অনেকেই মনে করছেন, বাংলাদেশ-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের টানাপোড়নের ক্ষেত্রে কিছু জামায়াত-বিএনপি'র লবিস্টদের ভূমিকাই গুরুত্বপূর্ণ। সাম্প্রতিক সময়ে মুশফিক ফজল আনসারী নামে একজন কথিত সাংবাদিক এই লবিস্ট প্রক্রিয়ার সঙ্গে সরাসরি যুক্ত বলে জানা গেছে। এছাড়াও যুদ্ধাপরাধীদের সন্তানরা বিভিন্ন লবিস্ট ফার্ম নিয়োগ করে সেখানে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রচারণার জন্য কোটি কোটি টাকা খরচ করছে। তারাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের থিংক ট্যাংকদেরকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্ররোচিত করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ওসমান ফারুকের বড় ভাই সরাসরি মার্কিন নীতিনির্ধারকদের কাছে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অসত্য, মিথ্যা, বানোয়াট তথ্য উপস্থাপন করছেন। আর এই সমস্ত বিষয়গুলোর কারণেই মার্কিন নীতিনির্ধারকদের মধ্যে বাংলাদেশ সম্পর্কে বিভ্রান্তিকর, ভুল এবং অসত্য তথ্য যাচ্ছে বলে কূটনীতিক মহল মনে করেন। তাই নতুন রাষ্ট্রদূতকে একটা কঠিন চ্যালেঞ্জিং সময়ের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে দায়িত্ব নিতে হবে। এই দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই তাকে একদিকে যেমন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ সম্পর্কিত ভুল তথ্যগুলোকে পরিবর্তন করতে হবে, পাশাপাশি যেসমস্ত জামায়াত-বিএনপি'র লবিস্টরা বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভুল তথ্য দিচ্ছেন সেটিও বন্ধ করতে হবে। মোহাম্মদ ইমরানের জন্য এটি হবে কঠিন চ্যালেঞ্জিং। তাই প্রশ্ন উঠতেই পারে যে, রাষ্ট্রদূত বদলে কি সম্পর্কের উন্নয়ন করা সম্ভব হবে? বিশেষ করে নির্বাচনের মাত্র দেড় বছর আগে এই সম্পর্ক উন্নয়নটি যখন অত্যন্ত জরুরী।

বিষয়ঃ বাংলাদেশ

Share This Article


পরিত্যক্ত কূপ থেকে জাতীয় গ্রিডে ৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস

ঢাকায় দু’মাসের মধ্যে হাইড্রোলিক হর্ন বন্ধ করা হবে : পরিবেশমন্ত্রী

করোনায় আরও একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ১১

১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা থেকে দুর্নীতি নির্মূল করাই আমাদের লক্ষ্য: হাইকোর্ট

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ৭.৫ মিলিয়ন ডলার দেবে নেদারল্যান্ডস

কাতার সফর শেষে দেশে ফিরেছেন সেনাপ্রধান

করোনায় আরও একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৯

বাংলাদেশ ব্যাংকের ২ বিলিয়ন ডলার গায়েবের গায়েবী তথ্য

তেল-গ্যাস-বিদ্যুতের দাম নির্ধারণ করতে পারবে সরকারও

পিনাকী : ভয়ংকর এক তথ্য সন্ত্রাসী

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে নয়া ভারতীয় হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ