গুজব প্রতিরোধসহ ডিসিদের যে নির্দেশনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ০২:৪৭, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২৩, ১০ মাঘ ১৪২৯

গুজব প্রতিরোধ ও পণ্যমূল্য স্বাভাবিক রাখতে বাজার মনিটরিংসহ জেলা প্রশাসকদের ২৫ দফা দিক নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৪ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তিন দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এই নির্দেশনা দেন তিনি।

 

উল্লেখযোগ্য নির্দেশনাগুলো হচ্ছে-

১. খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা গ্রহণ করতে হবে।পতিত জমিতে ফসল ফলাতে হবে।  

২. বিদ্যুৎ ও জ্বালানি ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে এবং জনগণকে এ ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

৩. সরকারি তহবিল ব্যবহারে কৃচ্ছতা সাধন করতে হবে।

৪. দেশে একজনও ভূমিহীন ও গৃহহীন থাকবে না। গৃহহীনদের জন্য গৃহনির্মাণ, ভূমিহীনদের কৃষি খাসজমি বন্দোবস্তসহ সকল সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে যেন প্রকৃত অসহায়, দুস্থ ও সুবিধাবঞ্চিত প্রান্তিক শ্রেণির মানুষ সুযোগ পায় তা নিশ্চিত করতে হবে। জমি ও ঘর প্রদানের পাশাপাশি কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে।

৫. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের পাঠদান কার্যক্রমের মানোন্নয়নে উদ্যোগী হতে হবে। অপেক্ষাকৃত দুর্গম এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রতি বিশেষ মনোযোগ দিতে হবে।

৬. কমিউনিটি ক্লিনিক ও ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ কেন্দ্রসমূহ যেন কার্যকর থাকে তা প্রতিনিয়ত তত্ত্বাবধান করতে হবে।

৭. শিশু-কিশোরদের শারীরিক-মানসিক বিকাশের জন্য প্রত্যেক এলাকায় সৃজনশীল চর্চা, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড ও ক্রীড়া সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে।

০৮. নাগরিকদের সুস্থ জীবনাচারের জন্য জেলা ও উপজেলায় পার্ক, খেলার মাঠ প্রভৃতির সংরক্ষণ এবং নতুন পার্ক ও খেলার মাঠ তৈরির উদ্যোগ নিতে হবে।

০৯. পরিবর্তনশীল বিশ্বের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সর্বোচ্চ সুবিধা নিতে উচ্চ প্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন দক্ষ শ্রমশক্তি গড়ে তুলতে কাজ করতে হবে।

১০. জনসাধারণের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি ও ইন্টারনেটের নিরাপদ ব্যবহার নিশ্চিতকরণে কাজ করতে হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার, গুজব রোধে উদ্যোগ নিতে হবে।

১১. আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির যেন কোনোভাবেই অবনতি না হয় সে লক্ষ্যে নজরদারি জোরদার করতে হবে।

১২, মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে কেউ যেন সম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে না পারে সে বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে।

১৩. মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দূর করতে হবে। নিরীহ ধর্মপ্রাণ মানুষ যাতে জঙ্গিবাদে জড়িত না হয় সে জন্য সচেতনতা তৈরির উদ্যোগ নিতে হবে। যুবসমাজকে মাদক সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ থেকে মুক্ত রাখতে হবে।

১৪. ইভটিজিং, খাদ্যে ভেজাল, নকল পণ্য তৈরির মতো অপরাধ প্রতিরোধে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে হবে।

১৫. বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন রাখতে, কৃত্রিম সঙ্কট রোধ ও পণ্যমূল্য স্বাভাবিক রাখতে বাজার মনিটরিং কার্যক্রম জোরদার করতে হবে।

১৬. নিয়মিত নদী ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে নাব্যতা বৃদ্ধি করতে হবে। সুইচগেট বা অন্য কোনো কারণে যেন জলাবদ্ধতার সৃষ্টি না হয় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। বিশেষ করে জলাবদ্ধতার জন্য যেন উৎপাদন ব্যাহত না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে।

১৭. জেলার নিজস্ব ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি রক্ষা এবং জেলাভিত্তিক বিখ্যাত পণ্যসমূহের প্রচার, বিপণন এবং ব্রান্ডিং করতে হবে।

 

বিষয়ঃ সরকার

Share This Article

বাংলাদেশের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ অনুমোদন আইএমএফের

নেপালের উপপ্রধানমন্ত্রীকে সরিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট

তারেকের বিরুদ্ধে রেমিট্যান্স গায়েবের অভিযোগ !

গোপনে নির্বাচনী সমঝোতা করছে বিএনপির হাইকমান্ড!

শরিকদের সাথে প্রতারণা, ভরাডুবি হলে সব দায় বিএনপির !

প্রধানমন্ত্রীর জনসভার উদ্দেশে মাদ্রাসা মাঠে আসছেন নেতাকর্মীরা

আমনে ভাসছে দেশ: বিঘা প্রতি কৃষকের মুনাফা ১৮ থেকে ২১ হাজার টাকা!

একদিকে আন্দোলন,আরেকদিকে নির্বাচনের জন্য প্রার্থী চূড়ান্ত বিএনপির!

গুজব কাটিয়ে ব্যাংকে আস্থা ফিরেছে সাধারণ মানুষের

ক্ষমতা ছাড়াই হাজার কোটির সম্পত্তি বিএনপি নেতা আমানের


মানুষের স্বপ্ন আওয়ামী লীগ সরকার বাস্তবে রূপ দিচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

বিএনপির যুগপৎ আন্দোলন:সময় না পেরুতেই বেকায়দায় আন্দোলনের সঙ্গীরা!

রাষ্ট্রদূত মুহিত জাতিসংঘ শান্তি বিনির্মাণ কমিশনের সহ-সভাপতি নির্বাচিত

শিলাবৃষ্টিসহ বজ্রঝড়ের পূর্বাভাস

বিশ্বজুড়ে কোভিডে আক্রান্ত ও মৃত্যু বেড়েছে

কোমর ভাঙলেও বিএনপির ষড়যন্ত্র থেমে নেই: তথ্যমন্ত্রী

নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতার পরিবর্তন হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রথমবারের মতো দেশে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন বিদেশি কূটনীতিকরা

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে সবাইকে কাজ করতে হবে: সমাজকল্যাণমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাদের মনোনয়নের ব্যাপারে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়

‘পাঠ্যবইয়ে যে তথ্য নেই, সেটা বলে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে’

টুইটারে ঝগড়ায় জড়ালেন কঙ্গনা-উরফি