যে কারণে তারেকের দেশে ফেরার গুজব ছড়াচ্ছে বিএনপি

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ রাত ০৮:৪৮, শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তারেককে দেশে ফিরিয়ে আনার কথা একাধিকবার বলায় এটি বাস্তবায়নের সম্ভাবনাও দৃঢ় হচ্ছে। আর বিএনপি নেতারা ভালো করেই জানেন যে, তারেক দেশে আসলে তাঁকে বিমানবন্দর থেকেই জেলে যেতে হবে।

গত ১৩ জুন জাতীয় প্রেস ক্লাবে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, 'তারেক রহমান তৈরি হয়ে আছেন, যে কোনো মুহূর্তে দেশে আসতে পারেন। তিনি যখনই দেশের মাটিতে পা দেবেন তখন শুধু ফ্যাসিবাদ দূরই হবে না, নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। তিনি ফ্যাসিবাদকে কবরস্থ করার জন্য আসবেন'। দুদুর এমন বক্তব্যে বিএনপি কর্মীরা কিছুটা উজ্জীবিত হয়েছেন বলে মনে করা হলেও তার বক্তব্যকে আমলে নিচ্ছেন না খোদ বিএনপি নেতারাই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মহানগর বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী প্রায় সময়ই তারেক সাহেবকে দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকরের হুমকি দেন। অতি সম্প্রতি তাঁর কয়েকটি বক্তব্যে বিষয়টি তিনি দৃঢ়তার সাথেই উচ্চারণ করেননি, বলা যায় তিনি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন। ফলে বিএনপিকেও বিষয়টি গুরুত্বের সাথে আমলে নিতে হয়েছে। ফোরামেও আলোচনা হয়েছে। দুদু সাহেবের বক্তব্যকে মূলত সেই আলোচনার ফল বলা যেতে পারে।

সামসুজ্জামান দুদুর বক্তব্যের সুর ধরে বিএনপির আরেক নেতা বলেন, দুদু সাহেব সত্য কথাই বলেছেন হয়তো। তবে তাঁর বক্তব্যে তৃণমূল উজ্জীবিত।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  বলেছেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে। তিনি বলেন, এখন একটাই কাজ, ঐ কুলাঙ্গারটাকে এনে রায় বাস্তবায়ন করা। শুধু একবার নয়, প্রধানমন্ত্রী তারেককে দেশে আনার বিষয়ে একাধিকবার এমন কথা বলেছেন।

সূত্রমতে প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রেক্ষাপটে বিএনপিতে চরম হতাশা ভর করে। বিষয়টি টের পেয়ে বিএনপি নেতৃবৃন্দ ফোরামে আলোচনা করেন। আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতেই সামসুজ্জানান দুদু তারেকের দেশে ফেরা নিয়ে নিয়ে উৎসাহব্যঞ্জক বক্তব্য প্রদান করেন।

তবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন ভিন্ন কথা। তারা বলছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তারেককে দেশে ফিরিয়ে আনার কথা একাধিকবার বলায় এটি বাস্তবায়নের সম্ভাবনাও দৃঢ় হচ্ছে। আর বিএনপি নেতারা ভালো করেই জানেন যে, তারেক দেশে আসলে তাঁকে বিমানবন্দর থেকেই জেলে যেতে হবে। আর তা ঠেকানোর মতো সাংগঠনিক শক্তিমত্তাও নেই দলটির, যার প্রমান মিলেছে দলটির চেয়ারপারসোনের কোর্ট থেকে সরাসরি জেলে যাওয়ার ঘটনায়। কিন্তু বেগম জিয়ার চাইতে অনেক  কম জনপ্রিয় নেতা তারেক। সুতরাং সরকার তাকে জেলে নিলেও কিছুই করতে পারবে না দলটি।

Share This Article

আন্দোলন ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ষড়যন্ত্র করছে: ডিবিপ্রধান

নিহত সবুজের লাশ নিয়ে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

কোটা আন্দোলনের কর্মসূচি ঠিক করে দিচ্ছে বিএনপি-জামায়াত

কোটা আন্দোলনকারীদের তান্ডব:বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের হল পুড়ে ছাই

প্রধানমন্ত্রী সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন

চট্রগ্রাম মেডিকেলের অজ্ঞাত লাশকে শিক্ষার্থীদের লাশ বলে চালানোর চেষ্টা!

শিক্ষার্থীদের পাশে দেশবাসীকে দাঁড়ানোর আহবান ফখরুলের: পাশে দাঁড়িয়েছে কি বিএনপি?

ঢাকা কলেজের ছাত্রের প্রাণহানি, সারা দেশে নিন্দার ঝড়

ছাত্রশিবির-ছাত্রদল এবং বহিরাগতরা ঢাবির হলে তাণ্ডব চালিয়েছে

কোটা আন্দোলন ঘিরে লাশের রাজনীতি করতে চায় বিএনপি-জামায়াত: কাদের


দুইজন নিহতের অসত্য দাবি যুক্তরাষ্ট্রের, কড়া প্রতিবাদ বাংলাদেশের

সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে স্বঘোষিত ‘রাজাকার,’ কেমন মেধাবী তারা?

কোটা আন্দোলনে বিএনপির অর্থায়ন, সারা দেশে শিবিরের শক্ত নেটওয়ার্ক

ঢাবি ক্যাম্পাসে যেভাবে জড়ায় ছাত্রলীগ

'রাজাকার' পরিচয় দিতে একবারও লজ্জা হলো না তাদের

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সাথে 'ওয়ান ইলেভেন' সরকারের আচরণ যেমন ছিল

কোটা সংস্কার আন্দোলন: সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠে দাঁড়িয়ে কলঙ্কের পদচিহ্ন এঁকে দিলো যারা!

রাজাকার পরিচয় বহনকারীদের বাংলা ছাড়ার দাবি সারাদেশে

দেশে দেশে কোটা ব্যবস্থা

দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপিটের ছাত্রদের মেধার এতো অধঃপতন!

শিক্ষার্থী আন্দোলন ফায়দা লোটার আত্মঘাতী কৌশল

যুক্তরাজ্যে থাকতে হলে রাজনীতি ছাড়তে হবে তারেককে!