টিসিবির কার্ডধারীর সাশ্রয় মাসে ৩১৪ টাকা

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ১০:২০, শনিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২৩, ২৫ চৈত্র ১৪৩০

নিত্যপণ্যের দামের ঊর্ধ্বগতিতে দরিদ্র ও নিম্নবিত্তের মানুষকে স্বস্তি দিতে সুলভে তিনটি পণ্য বিক্রি করছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। এতে মাসে প্রত্যেক কার্ডধারীর ৩১৪ টাকা সাশ্রয় হচ্ছে। সানেমের একজন গবেষক বলেছেন, সার্বিকভাবে এই উদ্যোগ বড় ধরনের সুবিধা না দিলেও গরিবদের উপকারই হচ্ছে। বর্তমান মূল্যস্ফীতির সময়ে দাম আরো কমানোর পাশাপাশি পণ্যের সংখ্যা বাড়ানো যায় কি না, তা বিবেচনা করা উচিত।

সারা বছর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রতিষ্ঠান টিসিবি কার্ডের মাধ্যমে তেল, ডাল ও চিনি বিক্রি করে। তবে একজন কার্ডধারী মাসে সর্বোচ্চ একবার দুই লিটার তেল, দুই কেজি ডাল এবং এক কেজি চিনি কিনতে পারেন। রোজার মাস উপলক্ষে গত মার্চে ছোলা ও খেজুরও দেওয়া হয়েছে।

চলতি মাসে সেই আগের মতো তেল, ডাল ও চিনি ক্রয় করতে পারবেন। একজন কার্ডধারী চিনি কিনতে পারেন এক কেজি, দাম ৬০ টাকা; সয়াবিন তেল নিতে পারেন দুই লিটার, দাম ২২০ টাকা; ডাল নিতে পারেন দুই কেজি, দাম ১৪০ টাকা। এই তিন পণ্য কিনতে মোট খরচ হয় ৪২০ টাকা। আর খুচরা বাজার থেকে এক কেজি চিনি ১২০ টাকা, দুই লিটার সয়াবিন তেল (ফ্রেশ ও তীর) ৩৭৪ টাকা এবং দুই কেজি মসুর ডাল কিনতে ২৪০ টাকা লাগে। এতে টিসিবি থেকে দেওয়া সমপরিমাণ পণ্য খোলাবাজারে কিনতে খরচ হয় ৭৩৪ টাকা। অর্থাৎ একজন টিসিবির কার্ডধারী লাইনে দাঁড়িয়ে মাসে ৩১৪ টাকা কমে পণ্য কিনতে পারেন।

রাজধানীর খিলগাঁওয়ের ‘সি’ ব্লক এলাকার খিলগাঁও পুরাতন পাকা জামে মসজিদের পাশে মা ইলেকট্রিক অ্যান্ড ওয়ার্কশপ নামের একটি দোকানে কাজ করেন মো. পারভেজ। তিনি বলেন, ‘রোজার তিন-চার দিন আগে খেজুর, ডাল, চিনি, তেল, ছোলা পেয়েছি। এর পরে কোনো পণ্য আসেনি। আমাদের পরিবারে মোট আটজন সদস্য। আমার বাবা ও মায়ের নামে কার্ড করা। এমন সিরিয়াল থাকে, এটা নিতে গেলেও তিন দিন লাগে। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষে ভরে যায়। এখানে সবাই পেয়েছে। পায়নি যে এটা বলা যাবে না।’

মোহাম্মদপুর টাউন হল মার্কেটের পাশে জুতা মেরামতের কাজ করেন সঞ্জীবন চন্দ্র দাস। তিনি বলেন, ‘মাসে একবার নিয়ে পোষায় না। মাসে দুইবার দিলে ভালো হতো। ছয়জনের পরিবার আমার। মাসে চার লিটার তেল লাগে। পাই দুই লিটার। ডাল ও চিনি ঠিক আছে। চাল লাগে। সেটা তো কার্ডে দেয় না।’

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর ওয়ার্ডে খিলগাঁও ঝিলপারে মেসার্স দেলওয়ার স্টোরের মালিক মো. দেলওয়ার হোসেন টিসিবির পণ্য বিক্রি করেন। তিনি বলেন, ‘মাসে একবার মাল উঠবে (পণ্য পাওয়া যায়)। এটা ওয়ার্ডভিত্তিক, কার্ডধারী লোকদের কাছে দোকানে রেখে বিক্রি করতে হবে, প্রতি মাসে একবার। একজন ক্রেতা এক কার্ডে একবার পাবে। যারা টিসিবির পণ্য বিক্রি করবে তারা ওয়ার্ডে যাদের কার্ড আছে শুধু তাদের কাছে বিক্রি করতে পারবে। বর্তমানে এটাই নিয়ম।’ তিনি আরো বলেন, ‘আজ (গত বুধবার) পণ্য নিয়ে এসেছি। কমিশনার সাহেব প্যাকেট করে বিক্রি করতে বলেছেন। এ জন্য প্যাকেট করা হচ্ছে। কাল (বৃহস্পতিবার) সকাল ১০টা থেকে বিক্রি করব। মাল যতক্ষণ থাকে ততক্ষণ বিক্রি চলবে।’

টিসিবি সূত্রে জানা গেছে, সারা দেশে এক কোটি মানুষকে টিসিবির কার্ড দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন মিলে মোট ১৩ লাখ বাসিন্দাকে কার্ড দেওয়া হয়েছে। গত মাসে রোজা উপলক্ষে ছোলা ও খেজুরও দেওয়া হয়েছিল। চলতি মাসে ডাল, চিনি ও তেল সরবরাহ করা হচ্ছে, ২০ এপ্রিলের মধ্যে এগুলোর বিক্রি শেষ হবে। এক কোটি পরিবারকে দেওয়ার জন্য ১০ হাজার মেট্রিক টন চিনি, ২০ হাজার মেট্রিক টন ডাল এবং দুই কোটি লিটার তেল বরাদ্দ রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি।

সানেমের গবেষণা পরিচালক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক সায়মা হক বিদিশা বলেন, ‘এখানে দুটি বিষয়। একটি হলো টিসিবিতে সব নিত্যপণ্য নেই। দ্বিতীয়ত, পরিমাণে যা দেওয়া হচ্ছে, তা দিয়ে সারা মাস চলে না। সার্বিকভাবে বলতে গেলে খুব বড় ধরনের সুবিধা হচ্ছে না। তার পরও বলব, সার্বিকভাবে এই উদ্যোগ ভালো। টাকার হিসাবে খুব বড় প্রভাব ফেলছে না, কিন্তু যাদের কথা আমরা বলছি, তাদের ক্ষেত্রে ওই পণ্যগুলো কেনার ক্ষেত্রে সামান্য উপকার হলেও তাতে ক্ষতি কী? তবে আমরা মূল্যস্ফীতি নিয়ে কথা বলছি। সে ক্ষেত্রে ওই জিনিসগুলোর দাম আরো কমানো যায় কি না, সেটা ভাবা দরকার। যে উপকারটুকু মানুষ পাচ্ছে, তা খুবই কম (মার্জিনাল)। তাই বলে উঠিয়ে ফেলা হোক, সেটা বলব না। পণ্যের সংখ্যা ও পরিমাণ আরো বাড়ানো এবং সরকার যদি আরো একটু ভর্তুকি দেয়, তাহলে তাদের (কার্ডধারীদের) উল্লেখযোগ্য লাভ হতো।’

টিসিবির মুখপাত্র হুমায়ুন কবির বলেন, ‘পণ্য বাড়ানোর সম্ভাবনা এখন নেই। তিনটি পণ্য সরবরাহ করাটাই এখন চ্যালেঞ্জ। পবিত্র রমজানের সময় ছোলা ও খেজুর আমরা দিয়েছি, যা খুবই জরুরি ছিল। আগস্ট থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত পেঁয়াজ যুক্ত করি। আপাতত পরিকল্পনার মধ্যে এতটুকুই আছে, যা আমরা সুচারুরূপে করার চেষ্টা করছি।’

বিষয়ঃ বাংলাদেশ

Share This Article

আন্দোলনের সুযোগ নিয়ে কিছু মহল বেদনাদায়ক ঘটনা ঘটিয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

কোটার আড়ালে চট্টগ্রামে শিবির নেতার নির্দেশেই হত্যাকাণ্ড?

অহেতুক কিছু কথায় মূল্যবান জীবন ঝরে গেল : প্রধানমন্ত্রী

আন্দোলন ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ষড়যন্ত্র করছে: ডিবিপ্রধান

নিহত সবুজের লাশ নিয়ে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

কোটা আন্দোলনের কর্মসূচি ঠিক করে দিচ্ছে বিএনপি-জামায়াত

কোটা আন্দোলনকারীদের তান্ডব:বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের হল পুড়ে ছাই

প্রধানমন্ত্রী সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন

চট্রগ্রাম মেডিকেলের অজ্ঞাত লাশকে শিক্ষার্থীদের লাশ বলে চালানোর চেষ্টা!

শিক্ষার্থীদের পাশে দেশবাসীকে দাঁড়ানোর আহবান ফখরুলের: পাশে দাঁড়িয়েছে কি বিএনপি?


ঢাবি বন্ধ ঘোষণা, সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ

ঢাবির ভিসি চত্বরে অবস্থান নিয়েছেন আন্দোলনকারীরা

এবার সিটি কর্পোরেশনগুলোতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ও বন্ধ ঘোষণা

কঠোর নিরাপত্তায় রাজধানীতে চলছে তাজিয়া মিছিল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জরুরি সিন্ডিকেট সভা শুরু

ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে অভিযানে নামবে পুলিশ : ডিবিপ্রধান

দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা, শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ

উত্তরায় আওয়ামী লীগের প্রতিবাদী মিছিল

ফাঁকা হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, হল ছাড়ছেন শিক্ষার্থীরা

বিএনপি কার্যালয় থেকে ১০০ ককটেল উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৭

দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

‘রাজাকারের স্লোগান’ নেতৃত্বদানকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা চান পররাষ্ট্রমন্ত্রী